ছাদ থেকে ফেলে হত্যার অভিযোগ ৮ম শ্রেণীর ছাত্রীকে

হবিগঞ্জ শহরের সবুজবাগ এলাকায় ৮ম শ্রেণীর জনৈক এক ছাত্রীকে ৪র্থ তলার ছাদ থেকে ফেলে হত্যা চেষ্টা করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে প্রথমে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করা হলেও রাত ১১ টার দিকে তাকে আশংকা জনক অবস্থায় সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়।

শনিবার সন্ধ্যায় এ ঘটনাটি ঘটে। জনৈক ওই স্কুল ছাত্রী বানিয়াচং উপজেলার জাতুকুর্ণ পাড়া মহল্লার বিল্লাল হোসেনের কন্যা। সে স্থানীয় একটি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণীর ছাত্রী। স্কুল ছাত্রীর মা হাসপাতালে সাংবাদিকদেরকে জানান, বিকেলের দিকে তার ৮ম শ্রেণীর পড়ুয়া কন্যা কোচিং করার জন্য শহরের সবুজবাগ এলাকার একটি কোচিং সেন্টারে যায়। পরে সেখান থেকে তার বান্দবীরা তাকে কৌশলে একটি বাসায় নিয়ে যায়। বাসায় নিয়ে যাওয়ার পর তারা তাকে বাড়ির ৪র্থ তলায় নিয়ে যায়। পরে তার বান্দবীরা তাকে সেখানে নির্যাতন করে। এক পর্যায়ে সে ৪র্থ তলার পার্শ্ববর্তী একটি গাছ দিয়ে নিচে নামার চেষ্টা করলে পড়ে গুরুতর আহত হয়। পরে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়।

তবে সেখানে ঠিক কি ঘটেছে সে সম্পর্কে স্পষ্ট কিছু এখনও জানা যায়নি। অপর একটি সূত্র জানিয়েছে, প্রেম সংক্রান্ত ঘটনা নিয়ে ওই স্কুল ছাত্রীকে ব্ল্যাক মেইল করতেই তাকে বাসার ছাদে নেয়া হয়। পরে তাকে ছাদ থেকে ফেলে হত্যার চেষ্টা করা হয়। তাই এ বিষয়টি নিয়ে শহরজুড়ে ধুম্রজালের সৃষ্টি হয়েছে।

কমেন্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published.