রুশ ধনকুবেরের সুপারইয়াটে অমূল্য ‘ফ্যাবার্জের ডিম’ ঘিরে তোলপাড়

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: মার্কিন কর্তৃপক্ষের জব্দ করা এক রাশিয়ান ধনকুবেরের সুপারইয়াটে একটি অমূল্য ‘ফ্যাবার্জের ডিম’ ডিম পাওয়া গেছে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান বৃহস্পতিবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

রাশিয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের পর রুশ ধনকুবেরদের বিভিন্ন সম্পদের পর চালানো তদন্তে এ পর্যন্ত যেসব জিনিস পাওয়া গেছে, তার মধ্যে এই ‘ফ্যাবার্জের ডিম’ই সবচেয়ে কৌতুহল উদ্দীপক বলে দ্য গার্ডিয়ানের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

এ ব্যাপারে মার্কিন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল লিসা মোনাকো বুধবার অ্যাস্পেন সিকিউরিটি ফোরামকে বলেন, তার দলের খুঁজে পাওয়া আকর্ষণীয় জিনিসগুলোর মধ্যে এই ‘ফ্যাবার্জের ডিম’ অন্যতম।

রাশিয়ান সম্পদ হিমায়িত এবং বাজেয়াপ্ত করার ক্ষেত্রে আইন প্রয়োগকারীর ভূমিকা নিয়ে কাজ করে অ্যাস্পেন ফোরাম। ওই ফোরামকে তিনি বলেন, আমরা কিছু সত্যিই আকর্ষণীয় জিনিস খুঁজে পেয়েছি … আমরা এই (ইয়ট) গুলোর মধ্যে একটিতে একটি ‘ফ্যাবার্জ’ বা কথিত ‘ফ্যাবার্জের ডিম’ উদ্ধার করেছি। তাই এটি আরও বেশি আকর্ষণীয় হয়ে উঠছে।

ঠিক কোন ইয়টের কথা উল্লেখ করছেন তা নির্দিষ্ট করে বলেননি মোনাকো। তবে গত মাসে ফিজি থেকে যাত্রা করার পরে এটি বর্তমানে সান দিয়েগো উপসাগরে নোঙ্গর করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

এর আগে যুক্তরাষ্ট্রের অনুরোধে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিত রুশ ধনকুবের সুলেইমান কেরিমভের ৩০ কোটি ডলারের একটি প্রমোদতরী আটক করেছে ফিজি।মোনাকো ওই সুপারইয়টের কথাও বলে থাকতে পারেন।

তিনি বলেন, আমরা বিশ্বব্যাপী আইন প্রয়োগকারীদের সঙ্গে কাজ করছি যেন আমরা এই ইয়টগুলোতে অনুসন্ধান চালাতে পারি।

একটি ফ্যাবার্জে ডিম রাশিয়ার সেন্ট পিটার্সবার্গে গহনা সংস্থা হাউস অব ফ্যাবার্জে তৈরি একটি গহনা। সম্ভবত মাত্র ৫০টি ফ্যাবার্জে ডিম তৈরি করা হয়েছিল। যার মধ্যে খুব অল্প কয়েকটি আজও অবশিষ্ট আছে বলে মনে করা হয়।

এ ব্যাপারে মোনাকো বলেছে যদি ওই অমূল্য গহনা আসল হয় তবে এটি বিশ্বের অবশিষ্ট কয়েকটির মধ্যে একটি হবে, যার মূল্য মিলিয়ন মিলিয়ন ডলার।

ছবি: সংগৃহীত
ছবি: সংগৃহীত

১৮৮৫ সালে রাশিয়ার জার আলেকজান্ডার থার্ড তার স্ত্রী মারিয়াকে উপহার দেওয়ার জন্য এক তরুণ গহনা প্রস্তুতকারককে এই ফ্যাবার্জের ডিম তৈরি করার নির্দেশ দেন। এর পরই এটি ঐশ্বর্য এবং বিলাসিতার একটি উপাখ্যান হয়ে উঠে। পরবর্তী তিন দশকে রোমানভ ঐতিহ্য হয়ে ওঠে এই অমূল্য গহনা।

কমেন্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published.