বাউলশিল্পী মনি মালার উপর হামলার প্রতিবাদে সিলেটে মানববন্ধন

বাউল শিল্পী মনি মালা সরকারের উপর হামলার প্রতিবাদে হামলাকারীদের গ্রেফতারের দাবিতে বাংলাদেশ বাউল কল্যাণ ফেডারেশন সিলেট শাখার উদ্যোগে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বেলা ২টায় সিলেট নগরীর চৌহাট্টাস্থ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়।

বাংলাদেশ বাউল কল্যাণ ফেডারেশন এর সভাপতি ফকির তোফাজ্জল ভান্ডারীর সভাপতিত্বে ও বাউল শিল্পী কল্যাণ ট্রাস্টের সাংগঠনিক সম্পাদক বাউল ভাসানী বারিক এর পরিচালনায় বাউল শিল্পী মনি মালা সরকারের উপর হামলাকারীদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবীতে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন- সমিতির সিলেট জেলা শাখার বাউল আবুল কাশেম সরকার, সাবেক সভাপতি বাউল বিরহী কালা, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক বাউল পথিক রাজু, সহ সভাপতি মোঃ কয়েছ আহম্মদ দুলাল, বাউল সূর্য্য লাল দাস, ফকির মাহবুবা, সাধারণ সম্পাদক যন্ত্রশিল্পী মোশাররফ হোসেন রাশেদ, শাহ আব্দুল করিম পরিষদের এম.এ নুর, প্রচার সম্পাদক আরশ আলী, গীতিকার আলাউদ্দিন, সমিতির মহিলা সম্পাদিকা কণ্ঠ শিল্পী খুশি নুরী, বাউল মাহমুদা আক্তার, বাউল সেপু সরকার, জালালী শামীমা, বাউল মাছুমা আক্তার, দুরবিন শাহ শিল্পীগোষ্ঠী সাধারণ সম্পাদক বাউল বশির উদ্দিন, প্রতিষ্ঠাতা ও সিলেট বিভাগীয় সমন্বয়কারী ফিরোজ আহমদ। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কণ্ঠশিল্পী খুশি নুরী, কণ্ঠশিল্পী মাফুজা বেগম, কণ্ঠশিল্পী এমি বেগম, কণ্ঠশিল্পী আয়শা আক্তার, কণ্ঠশিল্পী সেজু আক্তার, বাউল বাবুল সরকার, বাউল শুনুর আলী, গয়াস মিয়া, আব্দুর রব, গীতিকার আলাউদ্দিন, ফকির মহিবুর মুর্শিদ, নাইম, রুশন আলী, ইমন, খুশি, ইমাম আলী, আবুল কালাম, মুহিবুর রহমান প্রমুখ।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, দিনদুপুরে বাউলশিল্পি মনিমালার উপর বর্বরোচিত হামলা চালিয়ে তাকে মারাত্মকভাবে রক্তাক্ত জখম করা হয়েছে। তিনি বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসাধিন আছেন। মানববন্ধনে হামলাকারীদের অবিলম্বে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানানো হয়।

উল্লেখ্য, ৫ মে বৃহস্পতিবার সকালে পূর্ববিরোধের জের হিসেবে পরিকল্পিত ভাবে একদল সন্ত্রাসী দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে ভালুকার বাঁশিল গ্রামের খ্যাতিমান নারী বাউলশিল্পি মনিমালার বাড়িতে হামলা চালানো হয়। এ সময় বাঁধা দিতে গেলে মনিমালার উপর হামলা চালিয়ে তাকে পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করে সন্ত্রাসীরা। খোঁজ পেয়ে স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে প্রথমে ভালুকা সরকারী হাসপাতাল ও পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় মনিমালার স্বামী নূহু মিয়া বাদী হয়ে ভালুকা মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

কমেন্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published.