মহানবির হিজরত পথ নিয়ে প্রথম তথ্যচিত্র সৌদির

ধর্মকর্ম ডেস্ক::  মুসলিম উম্মাহর পথপ্রদর্শক সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ মানব হজরত মোহাম্মদ (সা:)-এর হিজরত নিয়ে একটি তথ্যচিত্র (ডকুমেন্টারি) তৈরি করা হচ্ছে। পর্যটকদের জ্ঞান ও অভিজ্ঞতা আরও সমৃদ্ধ করতে ‘রিহলাত মুহাজির’ (ইংরেজিতে অ্যান এমিগ্রান্ট জার্নি) নামে তথ্যচিত্রটি তৈরির উদ্যোগ নিয়েছে সৌদি আরব সরকার। মূলত ইসলামের নবী তাঁর বিশ্বস্ত সহচর হজরত আবুবকর (রা:)-কে সঙ্গে নিয়ে যে পথ দিয়ে মক্কা থেকে মদিনায় হিজরত করেছিলেন সেই পথটিই এই তথ্যচিত্রের মূল বিষয়। ইতোমধ্যে তথ্যচিত্রের প্রথম ধাপের কাজ সম্পন্ন হয়েছে বলে জানিয়েছেন নির্মাতারা।

পবিত্র হজের উদ্দেশ্য ছাড়াও প্রতি বছর বিশ্বের প্রত্যেক প্রান্ত থেকে লাখ লাখ পর্যটক সৌদিতে আসেন। এসব পর্যটকের জন্য মক্কায় জাবাল থর কালচারাল সেন্টার নামে একটি সাংস্কৃতিক কেন্দ্র তৈরি করা হয়েছে। শিগগিরই এটি উদ্বোধন করা হবে। এর উদ্বোধনের অংশ হিসাবেই মহানবীর হিজরত পথ নিয়ে তথ্যচিত্র তৈরি করা হচ্ছে।

সৌদির বিভিন্ন সাংস্কৃতিক স্থাপত্য প্রকল্প নির্মাণের কাজ করে সাময়া ইনভেস্টমেন্ট নামে একটি কোম্পানি। তারা ইতোমধ্যে জাতীয় জাদুঘর, প্রদর্শনী এবং এ ধরনের বিভিন্ন প্রকল্প নির্মাণ করেছে। জাবাল থর সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণের কাজও তারাই করছে। সামায় সিইও ফাওয়াজ আল মেরহেজ বলেন, আধুনিক প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে ‘রিহলাত মুহাজির’ তথ্যচিত্র প্রকল্পটি নির্মাণ করা হচ্ছে। এ ক্ষেত্রে এরিয়াল ডকুমেন্টেশন ও প্যানোরামিক ফটোগ্রাফি ৩৬০ প্রযুক্তি ব্যবহার করা হচ্ছে। এই কাজে সহায়তা করছে প্রায় চার হাজার ড্রোন। মেরহেজ বলেন, গত বছরের ২০ ডিসেম্বর তথ্যচিত্র নির্মাণকাজ শুরু হয়।

ইতোমধ্যে প্রথম ধাপের কাজ শেষ হয়েছে। এজন্য নির্মাতা দল হিজরতের পুরো পথটিই পর্যবেক্ষণ করেছে। পথটি মক্কার থর পর্বতের থর গুহা থেকে শুরু হয়ে ৪০টি স্টেশনের মধ্য দিয়ে মদিনার কুবা মসজিদে গিয়ে শেষ হয়েছে। তিনি বলেন, জাবাল থর সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে মহানবীর হিজরতের কাহিনী কিভাবে উপস্থাপন করা যায় সেই চিন্তা থেকেই হিজরত পথটির তথ্যচিত্র নির্মাণের ধারণাটি আসে।

কমেন্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published.