সন্ধ্যা পর্যন্ত অপেক্ষা করেও ভোট দিতে পারলেন না ২ শতাধিক নারী

সিলেট নিউজ টাইমস্ ডেস্ক:: কুষ্টিয়ার খোকসা উপজেলার ৫নং শিমুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ইভিএম মেশিনে ভোটগ্রহণে জটিলতার কারণে ভোট দিতে না পেরে কয়েকশ ভোটার বাড়িতে ফিরে গেছেন। ৪টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণের সময়সীমা নির্ধারণ থাকলেও ভোট দিতে না পেরে ৬টা পর্যন্ত ২ শতাধিক নারী ভোটারকে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়।

তবে পাইকপাড়া মির্জাপুর কেন্দ্রে সকাল থেকেই নারীদের ইভিএমে ভোট দিতে গিয়ে ফিঙ্গার ম্যাচ না হওয়ার কারণে জটিলতা সৃষ্টি হয়। যে কারণে বেলা সাড়ে ৩টার দিকে জেলা প্রশাসক কুষ্টিয়া মো. সাইদুল ইসলাম, পুলিশ সুপার কুষ্টিয়া মো. খায়রুল আলম, জেলা নির্বাচন অফিসার আনিসুর রহমান, খোকসা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মেজবাহ উদ্দিন উপস্থিত হয়ে মেশিনটি দ্রুত সারানোর ব্যবস্থা করেন এবং পুনরায় ভোটগ্রহণ শুরু করার চেষ্টা করেন। এ সময় অনেক ভোটার ভোট দিতে না পেরে বাসায় চলে যান। কিন্তু সন্ধ্যা পর্যন্ত ২ শতাধিক নারী ভোট দিতে না পেরে দাঁড়িয়ে থাকেন ভোট কেন্দ্রে।

ভোট দিতে না পারা ভোটারদের সাথে কথা বললে তারা জানান, সকাল থেকে দাঁড়িয়ে থেকেও ইভিএম মেশিনের ত্রুটির কারণে হাতের আঙুলের ছাপ না মেলায় সন্ধ্যার পরও ভোট দিতে পারেননি তারা। সারাদিন দাঁড়িয়ে থেকে ভোট দিতে না পেরে ক্ষোভ প্রকাশ করেন তারা।

খোকসা উপজেলা নির্বাচন অফিসার রশিদুল ইসলাম জানান, মেশিনের কোনো ত্রুটি নেই। ভোটারদের হাতের আঙুলের ছাপ না মেলার কারণে এ ধরনের জটিলতার সম্মুখীন হতে হচ্ছে। তবে জেলা নির্বাচন অফিসের মাধ্যমে ঢাকায় বিষয়টি জানানো হয়েছে। প্রিসাইডিং অফিসারের বিশেষ ক্ষমতাবলে এখনো যারা ভোট দিতে পারেননি তাদের জাতীয় পরিচয়পত্র দেখে ভোট গ্রহণের ব্যবস্থা করা হবে।

কমেন্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published.