সিলেটের পাহাড়িকা ও উদয়নে যুক্ত হচ্ছে নতুন কোচ

সিলেট নিউজ টাইমস্ ডেস্ক:: সিলেট-চট্রগ্রাম রুটের ট্রেনে যুক্ত হচ্ছে নতুন কোচ। আগামি ২৬ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইন্দোনেশিয়ার তৈরি নতুন এই কোচগুলো উদ্বোধন করবেন। পাহাড়িকা ও উদয়ন এক্সপ্রেস ট্রেনে নতুন কোচ সংযুক্ত হলে সিলেটবাসীর দীর্ঘদিনের এ দাবি পুরণ হবে।

রবিবার (১২ জানুয়ারি) বাংলাদেশ রেলওয়ে অতিরিক্ত মহাপরিচালক মিয়া জাহান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

দীর্ঘদিন ধরে অবহেলিত ছিল রেলের সিলেট-চট্টগ্রাম রুটে। এর মধ্যে সিলেট চট্টগ্রামের ট্রেন উদয়ন ও পাহাড়িকা এক্সপ্রেস ছিল জরাজীর্ণ। ট্রেন দুটির বেশিরভাগ আসনই শোভন শ্রেণীর। ৩৭৭ কিলোমিটার পথ পাড়ি দেওয়া এই রুটের যাত্রীদের কষ্টের সীমা ছিল না। কারণ ট্রেনগুলোতে কোমর সোজা করে প্রায় ১০ ঘণ্টা ভ্রমণ করতে হয়। এছাড়া ঢাকা-সিলেট রুটে জয়ন্তিকা এক্সপ্রেসেও চলছে জীর্ণ দশা।

রেলের অতিরিক্ত মহাপরিচালক মিয়া জাহান জানান, পরবর্তী সময়ে রেলের কোচ দেওয়ার ক্ষেত্রে প্রাধান্য থাকবে মূলত সিলেট রুটে। এরপর কিশোরগঞ্জ-ময়মনসিংহ-মোহনগঞ্জ রুটে পুরাতন ট্রেন কোচ বদলে নতুন ইন্দোনেশিয়ান কোচে সজ্জিত করা হবে।

আগামি ২৬ জানুয়ারি সিলেট-চট্টগ্রাম রুটের উদয়ন ও পাহাড়িকা এক্সপ্রেসে ১৪টি করে নতুন ইন্দোনেশিয়ান কোচ যুক্ত হবে বলে জানান তিনি। পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও সিলেট-১ আসনের সংসদ সদস্য ড. একে আবদুল মোমেন জানিয়েছেন, সিলেট রুটে নতুন ট্রেন কোচ দেওয়ার দাবি দীর্ঘদিনের। এ নিয়ে ডিও লেটারও দেওয়া হয়েছে।

যত দ্রুত সম্ভব ঢাকা-সিলেট রুটে কালনী, জয়ন্তিকা ও উপবন এক্সপ্রেস ট্রেনে নতুন কোচ দিয়ে এ অঞ্চলের মানুষের ট্রেন যাতায়াতের ভোগান্তি কমাতে রেল মন্ত্রণালয়ে একাধিকবার তাগিদ দিয়েছেন তিনি।

রেলের নতুন সময়সূচি অনুযায়ী, উদয়ন এক্সপ্রেস চট্টগ্রাম থেকে ছাড়ে রাত পৌনে ১০টায় এবং সিলেট এসে পৌঁছে ভোর ৬টা। আবার সিলেট থেকে সকাল ৯টা ৪০ মিনিটে ছেড়ে চট্টগ্রামে পৌঁছে বিকেল ৫টা ৫০মিনিটে। পাহাড়িকা এক্সপ্রেস সিলেট থেকে সকাল সোয়া ১০ টায় ছেড়ে চট্টগ্রাম পৌঁছে রাত ৭ টা ৩৫ মিনিটে। এছাড়া ট্রেনটি চট্টগ্রাম থেকে সিলেটের উদ্দেশে সকাল ৯ টায় ছেড়ে সিলেটে পৌঁছায় সন্ধ্যা ৬ টায়।

এদিকে ঢাকা-সিলেট রুটে জয়ন্তিকা, উপবন ও কালনী এক্সপ্রেস ট্রেন এখনও বেহাল দশার মধ্যে চলছে। পাশাপাশি সিলেট-ঢাকা রেলপথের অবস্থা খুবই নাজুক। গত বছর এ রূটে ১১টি দুর্ঘটনা ঘটেছে। কুলাউড়ার বরমচালে ট্রেন দুর্ঘটনায় ৫ জন যাত্রী মারা গেছেন, আহত হয়েছিলেন শতাধিক।

রেলের নতুন সময়সূচি অনুযায়ী, জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস ঢাকা থেকে ছাড়ে দুপুর ১২টায় এবং সিলেট পৌঁছে রাত পৌনে ৮টায়। আবার জয়ন্তিকা সিলেট থেকে ছাড়ে সকাল ৮টা ৪০ মিনিটে এবং ঢাকা গিয়ে পৌঁছে বিকেল ৪টা ২০মিনিটে। উপবন ট্রেন ঢাকা থেকে রাত ৯টা ৫০ মিনিটে ছেড়ে সিলেট আসে ভোর সাড়ে ৫টায়। আবার ট্রেনটি সিলেট থেকে ছেড়ে যায় রাত ১০টায় এবং ঢাকা পৌঁছায় ভোর ৫টা ২৫ মিনিটে।

কমেন্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.