মধ্যপ্রাচ্যে মার্কিনিদের কবর রচিত হবে, সোলাইমানির বাড়িতে খামেনি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক::
বাগদাদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে মার্কিন ড্রোন হামলায় নিহত ইরানি জেনারেল কাসেম সোলাইমানির পরিবারের সঙ্গে দেখা করেছেন দেশটির সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লাহ আলী খামেনি।

শুক্রবার রাতে কাসেম সোলাইমানির বাড়িতে গিয়ে তার পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে দেখা করে খামেনি তাদের সান্ত্বনা দিয়েছেন বলে ইরানের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা জানিয়েছে।

জেনারেল সোলাইমানির স্ত্রী ও সন্তানদের উদ্দেশে সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা বলেন, জেনারেল সোলাইমানি আল্লাহর পথে দায়িত্ব পালনের ক্ষেত্রে কোনো কিছুকেই পরোয়া করতেন না। এ পর্যন্ত বহু বার এমন অবস্থার মুখে পড়েছেন যে তখনও তিনি শহীদ হয়ে যেতে পারতেন।

সোলাইমানির মৃত্যুকে মর্যাদাপূর্ণ শাহাদাত আখ্যায়িত করে খামেনি বলেন, আল্লাহ তাকে অনেক মর্যাদাপূর্ণ শাদাহাত দান করেছেন। এটি আল্লাহর বড় নেয়ামত। তিনি এই নেয়ামতের যোগ্য ছিলেন।

এসময় শোকাহত পরিবারকে শান্তনা দিয়ে কুদস ফোর্সের নবনিযুক্ত প্রধান ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ইসমাইল কায়ানি বলেন, সামান্য ধৈর্য ধরুণ। মধ্যপ্রাচ্যে মার্কিনিদের কবর রচিত হবে।

তিনি বলেন, কাসেম সোলাইমানি হত্যার প্রতিশোধ হিসেবে মধ্যপ্রাচ্যজুড়ে মার্কিনিদের লাশ দেখতে আমাদের আর কিছুসময় ধৈর্য ধরতে হবে।

জেনারেল সোলাইমানির মেয়েকে উদ্দেশ্য করে সর্বোচ্চ নেতা বলেন, তোমার বাবার জন্য গোটা জাতি কাঁদছে। এটা হয়েছে ইখলাসের কারণে। জনগণ তোমার বাবার মর্যাদা উপলব্ধি করেছে।

এর আগে জেনারেল কাসেম সোলাইমানিকে যারা হত্যা করেছে, সেই অপরাধীদের জন্য ভয়াবহ প্রতিশোধ অপেক্ষা করছে বলে হুশিয়ারি দিয়েছিলেন ইরানের সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লাহ আলী খামেনি।

তার মৃত্যুতে ইরানে তিন দিনের রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা করে শুক্রবার তিনি বলেন, সব শত্রুদেরই জেনে রাখা উচিত, প্রতিরোধ বাহিনীর জিহাদ দ্বিগুণ উদ্যমে অগ্রসর হবে; অবশ্যই পবিত্র এ যুদ্ধে যোদ্ধাদের জন্য নিশ্চিত বিজয় অপেক্ষা করছে।

কমেন্ট