আজমিরীগঞ্জে কৃষক তোতন হত্যা মামলায় ৬ জনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড

11 total views, 1 views today

নিজস্ব প্রতিনিধি:: আজমিরীগঞ্জে কৃষক তোতন মিয়া হত্যা মামলায় ৬ জনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। এছাড়াও দন্ডপ্রাপ্ত প্রত্যেক আসামীকে আরো ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা অনাদায়ে আরো ২ বছর করে কারাদন্ড দেয়া হয়েছে।

সোমবার দুপুরে হবিগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক এসএম নাছিম রেজা এ দন্ডাদেশ প্রদান করেন। মামলায় অপর ১৪ জন আসামীর বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তাদেরকে বেকসুর খালাস প্রদান করা হয়েছে। দন্ডপ্রাপ্ত আসামীরা হল, উপজেলার জলসুখা শংকমোহন গ্রামের সফর আলীর পুত্র মোশাহিদ মিয়া, সামছুল হকের পুত্র মোহন মিয়া, বাগহাটি গ্রামের আলম মৌলার পুত্র জিয়াউর রহমান, আটপাড়া গ্রামের রহমান উল্লাহর পুত্র ওয়াহাব উল্লা, মধ্যপাড়া গ্রামের আবুল হোসেনের পুত্র চান মিয়া ও মির্কা গ্রামের বিনন মিয়ার পুত্র দিলু মিয়া। রায়ের সময়ে আদালতে দন্ডপ্রাপ্ত মোশাহিদ মিয়া ও জিয়াউর রহমান উপস্থিত ছিল। এছাড়াও অন্য ৪ আসামী পলাতক রয়েছে।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরনে জানা যায়, উপজেলার জলসুখা শংকরমোহন গ্রামের আব্দুল মজিদের পুত্র নিহত তোতন মিয়া আসামী মোশাহিদ মিয়া গংদের হয়ে গ্রামের পার্শ্ববর্তী একটি জলমহালে বাবুর্চির কাজ করত। তাদের মধ্যে বিভিন্ন বিষয়াধি নিয়ে পূর্ব বিরোধ থাকায় ২০০৫ সালের ৩০ অক্টোবর সন্ধ্যায় তোতন মিয়াকে ডেকে নিয়ে জলমহালের পার্শ্ববর্তী একটি ক্ষেতে জবাই করে হত্যা করে আসামীরা। এ ঘটনায় নিহত তোতন মিয়ার স্ত্রী আনোয়ারা আক্তার বাদী হয়ে ২০ জনকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলাটি দীর্ঘদিন তদন্ত শেষে তৎকালীন আজমিরীগঞ্জ থানার (ওসি) শ্যামল কান্তি বড়-য়া ২০০৬ সালের ১৯ মার্চ ২০ জনকেই আসামী করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। মামলায় ২৬ জন স্বাক্ষীর মধ্যে ১৫ জন স্বাক্ষীর স্বাক্ষ্য গ্রহন শেষে এ রায় প্রদান করা হয়। এতে ৬ জনকে যাবজ্জীবন ও অন্যান্যদের বেকসুর খালাস প্রদান করা হয়েছে। রায়ের সময় দন্ডপ্রাপ্ত ২ জন উপস্থিত ছিলেন পলাতক রয়েছে আরো ৪ জন।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবি পাবলিক প্রসিকিউটর এডডেভোকেট আব্দুল আহাদ ফারুক জানান, রায়ে বাদী পক্ষের লোকজন খুশি হয়েছে। তবে কয়েকজন আসামী খালাস পাওয়ায় তারা কিছুটা হতাশ। এ বিষয়ে তারা পরবর্তীতে আইনী পদক্ষেপ নিবেন।

কমেন্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.