আফগানিস্তানে সরকারি ভবনে বন্দুকধারীদের হামলায় নিহত ৪৩

112 total views, 1 views today

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের একটি সরকারি ভবনে বন্দুকধারীদের হামলায় অন্তত ৪৩ জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন ২০ জনেরও বেশি।

সোমবার (২৪ ডিসেম্বর) বিকালে দেশটির গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সামনে একটি গাড়িতে এক আত্মঘাতী বোমারুর বিস্ফোরণ ঘটানোর মধ্য দিয়ে হামলাটি শুরু হয়।

জঙ্গিরা এরপর প্রতিবন্ধী ও শহীদ পরিবার বিষয়ক জাতীয় কর্তৃপক্ষ ভবনে হামলা চালিয়ে বেসামরিকদের জিম্মি করে ও আফগান সৈন্যদের সঙ্গে বন্দুক লড়াইয়ে লিপ্ত হয়।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, প্রায় সাত ঘন্টা ধরে গোলাগুলি চলার পর রাতে ঘটনার অবসান হয় বলে জানিয়েছে আফগানিস্তানের কর্তৃপক্ষগুলো।

দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র নাজিব দানিশ জানিয়েছেন, নিহতদের অধিকাংশই সরকারি কর্মচারী। নিহত অন্যান্যদের মধ্যে একজন পুলিশ কর্মকর্তা ও হামলাকারীদের মধ্যে তিন জন রয়েছেন যারা আফগান নিরাপত্তা বাহিনীগুলোর গুলিতে নিহত হয়েছেন।

ঊর্ধ্বতন এক নিরাপত্তা কর্মকর্তা জানান, ওই ভবনটিতে আটকা পড়া সাড়ে তিনশরও বেশি লোককে উদ্ধারের জন্য আফগান নিরাপত্তা বাহিনীগুলো তলা ধরে ধরে অভিযান শুরু করেছিল, কিন্তু সেখানের কাজ করা কর্মচারীদের সংখ্যা জানার পর হামলাকারীদের বিরুদ্ধে অভিযান বন্ধ করে তারা।

তাৎক্ষণিকভাবে কোনো জঙ্গিগোষ্ঠী হামলার দায় স্বীকার করেনি।

এক প্রত্যক্ষদর্শী রয়টার্সকে জানান, গোলাগুলি থামার পর অ্যাম্বুলেন্সগুলোকে ঘটনাস্থলের দিকে যেতে দেখেছেন তিনি। এ ঘটনায় আহত অন্তত ২০ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

কাছেই আরেক সরকারি ভবনে কর্মরত একজন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, বিস্ফোরণ ও গোলাগুলির আওয়াজ শুনে কর্মচারীরা নিজ নিজ দপ্তরের দরজা বন্ধ করে ভিতরে অবস্থান করছিল।

স্থানীয় নিউজ চ্যানেলগুলোর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, অচলাবস্থা চলার সময় ভবনের দ্বিতীয় তলায় আগুন ধরে যায়।

নাজিব দানিশের বরাতে বিবিসি জানিয়েছে, শেষ পর্যন্ত ওই ভবনটি থেকে সাড়ে তিনশরও বেশি লোককে উদ্ধার করা হয়। হতাহতের সংখ্যা পরিবর্তিত হতে পারে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

রয়টার্স জানায়, আফগানিস্তানের সরকারি দপ্তরগুলোতে প্রায়ই হামলার ঘটনা ঘটে এবং এসব হামলার অধিকাংশই বিদ্রোহী তালেবানদের কাজ।

কমেন্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.