শায়েস্তাগঞ্জে আওয়ামীলীগ কার্যালয় ভাংচুর

114 total views, 1 views today

নিজস্ব প্রতিনিধি:: শায়েস্তাগঞ্জে আওয়ামীলীগ-বিএনপি’র নির্বাচনী সহিংতায় দলীয় কার্যালয় ও যানবাহন ভাংচুরসহ উভয় পক্ষের ২০ জন আহত হয়েছে। এ ঘটনায় হবিগঞ্জ-৩ (হবিগঞ্জ সদর-লাখাই-শায়েস্তাগঞ্জ) আসনে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট মনোনীত বিএনপি’র প্রার্থী আলহাজ্ব জি কে গউছ অবরুদ্ধ হয়ে পড়লে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তাসলিমা শিরিনের নেতৃত্বে ডিবি পুলিশ ও বিজিবি তাকে উদ্ধার করে।

গতকাল শনিবার রাত ৮ টায় শায়েস্তাগঞ্জ রেলওয়ে জংশন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, উল্লেখিত সময়ে ওই এলাকায় গণসংযোগ করতে যান আলহাজ্ব জি কে গউছ। এ সময় একদল লোক লাঠি-শোটা নিয়ে তার সাথে থাকা নেতাকর্মীদের উপর অতর্কিত হামলা চালায়।

এতে ছত্র-ভঙ্গ হয়ে নেতাকর্মীরা দিক-বেদিক ছুটা-ছুটি করতে থাকেন। জি কে গউছ নিজেও ‘মেসার্স মাসুদা হার্ডওয়ার’ নামক একটি দোকানে অবরুদ্ধ হয়ে পড়েন। খবর পেয়ে প্রায় দুই ঘন্টা পর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তাসলিমা শিরিনের নেতৃত্বে বিজিবি ও ডিবি পুলিশ অবরুদ্ধ অবস্থা থেকে জি কে গউছকে উদ্ধার করে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেয়।

এদিকে, এ হামলার ঘটনায় ১০/১২ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছে বলে দাবী করছে বিএনপি। অপরদিকে, স্থানীয় আওয়ামীলীগ দাবী করছে জি কে গউছের সাথে থাকা নেতাকর্মীরা বিনা উস্কানিতে তাদের কার্যালয় ও একাধিক যানবাহন ভাংচুর করেছে। তাদের দাবী, এ ঘটনায় আওয়ামীলীগ ও যুবলীগের ১০/১২ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছে।

এ ব্যাপারে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মানিকুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘নির্বাচনী সহিংসতার খবর পেয়ে আমার দ্রুত ঘটনাস্থলে যাই এবং পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করি’।

ঘটনার খবর ছড়িয়ে পড়ার পর থেকে শায়েস্তাগঞ্জসহ হবিগঞ্জ শহরজুড়ে বিএনপি ও আওয়ামীলীগ নেতাকর্মীদের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে।

কমেন্ট
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •