মোস্তাফিজকে ছেড়ে দিল মুম্বাই

138 total views, 1 views today

স্পোর্টস ডেস্ক ::ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) ১২তম আসর মাঠে গড়াতে এখনো ঢের বাকি। আগামী বছরের মার্চে শুরু হওয়ার কথা বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টটি। নির্ধারিত সময়ে তা গড়ালে নিলাম হবে আসছে ডিসেম্বরে। তার আগেই খেলোয়াড় ট্রান্সফার, কেনাবেচা শুরু করে দিয়েছে দলগুলো।

শুরুতেই চমক দিল মুম্বাই ইন্ডিয়ানস। রয়েল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু (আরসিবি) থেকে দক্ষিণ আফ্রিকা ব্যাটসম্যান কুইন্টন ডি কককে ডেরায় ভেড়াল ফ্র্যাঞ্চাইজিটি। প্রোটিয়া স্টাইলিশ ওপেনারকে ভেড়াতে গিয়ে বাংলাদেশ কাটার মাস্টার মোস্তাফিজুর রহমানকে ছেড়ে দিয়েছে তারা। সঙ্গে ছেড়েছে লঙ্কান স্পিন অলরাউন্ডার আকিলা ধনঞ্জয়াকে।

ইএসপিএন ক্রিকইনফো জানিয়েছে, গেল মৌসুমে ২ কোটি ৮০ লাখ রুপিতে ডি কককে কিনেছিল আরসিবি। একই মূল্যে সেখান থেকে তাকে কিনল মুম্বাই। এ কারণে মোস্তাফিজকে ছেড়ে দিয়েছে ফ্র্যাঞ্চাইজিটি। গতবার ২ কোটি ২০ লাখ রুপিতে তাকে কিনেছিল তারা। দ্য ফিজের পাশাপাশি ৫০ লাখ রুপিতে কেনা ধনঞ্জয়াকেও ছেড়ে দিয়েছে আইপিএলে সর্বোচ্চ তিনবার শিরোপাজয়ীরা।

গেল আসরে বেঙ্গালুরুর হয়ে ৮ ম্যাচ খেলে ২০১ রান করেন উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান ডি কক। স্ট্রাইক রেট ছিল ১২৪.০৭। মুম্বাইয়ে আরও দুই উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান রয়েছেন ইশান কিশান ও আদিত্য তারে। তবে তাদের দরকার টপঅর্ডারে একজন হার্ডহিটার। তাই ডি কককে কিনেছে তারা।

এর আগেও আইপিএল মাতান ডি কক। খেলেন দিল্লি ডেয়ারডেভিলস ও সানরাইজার্স হায়দরাবাদের হয়ে। সব মিলিয়ে ভারতের জমজমাট ঘরোয়া লিগটিতে ৩৪ ইনিংসে ১ সেঞ্চুরি ও ৬ হাফসেঞ্চুরিসহ করেছেন ৯২৭ রান। এর মধ্যে পাওয়ার প্লেতেই করেন ৫৭৩ রান। এ কারণেই নাকি তাকে নেয়ার লোভ সামলাতে পারেনি মুম্বাই।

গেল আসরে মোস্তাফিজের ওপর ভরসা রাখে মুম্বাই। শুরুতে প্রতি ম্যাচেই সুযোগ পান তিনি। বোলিং ভালোই করেন কাটার মাস্টার। তবে ফিল্ডিং খুব বাজে করেন। তার কয়েকটি ক্যাচ মিস রোহিত বাহিনীর হারের কারণ হয়ে দাঁড়ায়। ফলে আইপিএলের মাঝপথে তাকে বসিয়ে রাখে ফ্র্যাঞ্চাইজিটি। শেষ পর্যন্ত আর সুযোগ পাননি দ্য ফিজ। হয়তো এ কারণেই টাইগার বোলিং সেনসেশনকে ছেড়ে দিয়েছে তারা।

তবে আইপিএলে মোস্তাফিজের রেকর্ড-পরিসংখ্যান মন্দ নয়। ২৪ ম্যাচে নিয়েছেন ২৪ উইকেট। সেরা বোলিং ফিগার ১৬ রানে ৩ উইকেট, ইকোনমি ৭.৫১। স্লগ বা ডেথ ওভারে কার্যকরী বোলার হিসেবে সুখ্যাতি রয়েছে তার।

কমেন্ট
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •