সিলেটের ফুটপাতগুলো অবৈধ দোকানে সয়লাব!!

138 total views, 3 views today

সাহেদ আহমদ:: সিলেট শহরের ফুটপাতগুলো দীর্ঘদিন যাবৎ অবৈধভাবে বিভিন্ন স্থাপনা ও ভাসমান দোকানের দখলে রয়েছে। এমনকি রাস্তার একপাশ দখল করে ভ্যান গাড়িতে করে নানা তরিতরকারি, মৌসুমী ফল ও বিভিন্ন পণ্য বিক্রি করা হয়। বিভিন্ন মার্কেটের সামনেও এ অবস্থা বিরাজমান। শহরের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনে রাস্তার পাশে যেনো আরেকটি হকার্স মার্কেট গড়ে উঠেছে।

এমনিভাবে বন্দরবাজার মধুবন মার্কেট চত্বর, জিন্দাবাজার রাস্তার দু’পাশে, আম্বরখানা থেকে চৌহাট্রা, সুবিদবাজার,লামাবাজার, সবমিলিয়ে একটা বিশৃঙ্খল পরিবেশে তৈরী হয়েছে। মানুষজন ফুটপাত এবং রাস্তার পাশ দিয়ে হাঁটতে পারতেছেনা। একটু ফাঁকা জায়গা থাকলেই সেখানে দোকান তোলা হচ্ছে। আর রাস্তার পাশের এই অস্থায়ী চায়ের দোকানগুলোতে দিন-রাত বখাটে ও মাদকাসক্তরা বসে আড্ডা দেয় আর পথচারী মেয়েদের বিভিন্নভাবে উত্ত্যক্ত করে।

বছরের শুরুতে সিলেট সিটি করপোরেশন কর্তৃপক্ষ এসব অবৈধ স্থাপনা ও ভাসমান দোকান উচ্ছেদ করে ফুটপাত দখলমুক্ত করতে সাঁড়াশি অভিযান চালায়। বেশ ক’ দিনের নিয়মিত অভিযানে শহর অনেকটা জঞ্জাল মুক্ত হয়। এসব অবৈধ দোকান উচ্ছেদ করতে গিয়ে সিটি করপোরেশনের স্টাফরাও সন্ত্রাসী হামলার শিকার পর্যন্ত হয়েছেন। তারপরও সিটি মেয়রের অনড় অবস্থানের কারণে উচ্ছেদ অভিযান অব্যাহত থাকে।

শহরকে জঞ্জাল মুক্ত করে পথচারীদের পথচলা স্বাভাবিক করে দেয়ায় শহরবাসী মেয়রকে অভিভন্দন জানিয়েছেন। কিন্তু ইদানিং আবার দেখা গেছে যে, রাস্তার এক পাশ জুড়ে আবার ভ্যান গাড়ি অবস্থান করে বিভিন্ন পণ্য বিক্রি করছে। বিভিন্ন মার্কেট ও স্থায়ী দোকানগুলোর সামনে এভাবে ভ্যান গাড়ি রাস্তা দখল করে সকাল থেকে রাত পর্যন্ত অবস্থান করলেও দোকানদাররা কিছুই বলছেন না। শহরের গুরুত্বপূর্ণ ফুটপাতেও দেখা যায় বিকেলের দিকে ভ্যান গাড়িতে করে সারিবদ্ধ দোকান। এখনই যদি আবার নিয়মিত উচ্ছেদ অভিযান না করা হয় তাহলে আবার সেই আগের অবস্থা ফিরে আসবে। এমনিতেই রাস্তায় মানুষ ও যানবাহনের চাপ বেশি থাকে।

তার মধ্যে যদি ফুটপাত ও রাস্তার এক পাশ ভাসমান দোকানের দখলে থাকে তাহলে তো চরম বিশৃঙ্খল অবস্থা বিরাজ করবে। তাই আবার যেনো উচ্ছেদ অভিযান চালানো হয় এবং তা যেনো অব্যাহত রাখা হয় শহরবাসীর এটাই দাবি।

কমেন্ট
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •