হবিগঞ্জ শহরতলীর নাজিরপুরে প্রবাসির স্ত্রীকে হাত-পা বেধে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা

70 total views, 1 views today

নিজস্ব প্রতিনিধি :: হবিগঞ্জে শহরতলীর নাজিরপুরে প্রবাসির স্ত্রীকে মুখ ও হাত-পা বেধে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক আলোচনা সমালোচনা সৃষ্টি হয়েছে। খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেছেন।

স্থানীয়দের কাছ থেকে জানা যায়, হবিগঞ্জ সদর উপজেলার পইল ইউনিয়নের নাজিরপুর গ্রামের সৌদি প্রবাসী সঞ্জব আলী দীর্ঘদিন ধরে তার তার ছেলেকে নিয়ে জীবিকার তাগিদে সৌদি আরব বসবাস করছেন। বাড়িতে সিরাজ মিয়ার স্ত্রী সাজেরা খাতুন ও তার পুত্র পপি আক্তার বসবাস করছেন। গত রবিবার পবিত্র আশুরা উদযাপনের জন্য পপি আক্তার সুলতানশী তার পিতার বাড়িতে চলে যায়। বাড়িতে শুধু মাত্র তার শাশুরি সাজেরা খাতুন অবস্থান করেন। গতকাল শনিবার সাজেরা খাতুন ঘুম থেকে না উঠায় পাড়া-প্রতিবেশী ডাকাডাকি করেন। কিন্তু ঘুম থেকে না উঠায় তাদের সন্দেহ হয়। প্রতিবেশী একজন ঘরের জানালার ফাক দিয়ে হাত-পা ও মুখ বাধা অবস্তয় ঘরের মেজেতে সাজেরার দেহ পড়ে থাকতে দেখে চিৎকার শুরু করলে স্থানীয় লোকজন পুলিশকে খবর দেয়।

পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে দেখতে পায় রান্না ঘরের দরজা খোলা। তখন পুলিশ সহ স্থানীয় লোকজন ঘরে প্রবেশ করে দেখতে পায় ঘরের মূল্যবান জিনিসপত্র এলোমেলো ও সাজেরা হাত-পা ও মুখ কাপড় দিয়ে বাধা অবস্থায় লাশ পড়ে রয়েছে। পরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে নিয়ে আসে।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন লাশ দেখে প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে দুর্বৃত্তরা তাকে মুখ ও হাত-পা বেধে হত্যা করেছে।

এদিকে গতকাল রাত সাড়ে ৮টার দিকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন পুলিশেল উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

এ ঘটনার খবর বিদেশ পৌছলে তার পুত্র ও স্বামী দেশে আসছেন বলে আত্মীয় স্বজনরা জানিয়েছেন। এ মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। শত শত লোক ওই বাড়িতে ভিড় জমাচ্ছে।

এ ব্যাপারে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ সহিদুর রহমান জানান, হত্যাকান্ডের বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

কমেন্ট
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •