দুই ছিনতাইকারী গ্রেফতার ও মাদক উদ্ধার

73 total views, 1 views today

গত ১০/০৬/১৮খ্রি. তারিখ সকাল অনুমান ০৭:৫০ ঘটিকায় মাহফুজা খানম(৩৫) স্বামী-আবুল কালাম, লোন অফিসার আশা, শাহপরাণ ব্রাঞ্চ, শাহপরাণ (রহ:) থানাধীন শাহজালাল উপশহর, ব্লক-ডি, রোড নং-২২, বাসা নং-১৭ আশা অফিস এর সামনে পাকা রাস্তার উপর ছিনতাকারীর কবলে পড়ে শোর চিৎকার করলে অফিসে থাকা বাদী হরেন্দ্র চন্দ্র পালসহ সহকর্মীরা অফিস হতে বাহির হয়ে দেখতে পান যে, একজন ছিনতাইকারী মাহফুজা খানমের নিকট হতে একটি পার্স ব্যাগ ছিনতাই করে দৌড়িয়ে পালিয়ে যাচ্ছে।

তখন তার সহকর্মী মোঃ আব্দুর রহিম(৪৬) পিতা-মৃত লবজ উল্লাহ সাং-পাইকুড়া, থানা-চুনারুঘাট, জেলা-হবিগঞ্জ ছিনতাইকারীকে ঝাপটিয়ে ধরেন।

ছিনতাইকারী মোঃ হানিফ (১৯) তার হাতে থাকা অত্যাধুনিক ছোরা দিয়ে, মোঃ আব্দুর রহিমের কপালের উপরে মাথায় আঘাত করে পালিয়ে যায়। ভিকটিম মাহফুজা খানম (৩৫)’কে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় ছিনতাইকারী মোঃ হানিফ তার নিকট হতে একটি পার্স ব্যাগ মূল্য অনুমান ২৫০/- টাকা,

ব্যাগে রক্ষিত নগদ ৩,৫০০/- টাকা এবং তার ব্যবহৃত নকিয়া মোবাইল যাহার সংযোগ নং-০১৭২২-৩৯৭৬৮০, ০১৮৪০-৯৫৮৫৩০, মূল্য অনুমান ১৫০০/- টাকাসহ সর্বমোট ৫,২৫০/- টাকা ছিনতাই করেছে। বাদীর সহকর্মীগণ আহত আব্দুর রহিম (৪৬)’কে দ্রুত চিকিৎসার জন্য সিলেট নর্থইষ্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়া ভর্তি করেন। এসআই/রাজীব কুমার রায় সঙ্গীয় টহল পুলিশ অফিসার ফোর্স ও বাদীপক্ষসহ পলাতক ছিনতাইকারী মোঃ হানিফকে আটক ও লুন্ঠিত মালামাল উদ্ধারের চেষ্টার একপর্যায়ে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গত-১০/০৬/২০১৮খ্রি. তারিখ রাত অনুমান ০৮:০০ ঘটিকায় কোতোয়ালী থানাধীন বন্দরবাজার মাশরাফিয়া হোটেলের সামন থেকে ছিনতাইকারী মোঃ হানিফ’কে আটক করেন।

এসআই’রাজীব কুমার রায় আটককৃত ছিনতাইকারী মোঃ হানিফের পড়নের নেভী ব্লু টাউজারের সামনের ডান পকেট হতে ছিনতাই কাজে ব্যবহৃত একটি অনুমান ১০ ইঞ্চি লম্বা অত্যাধুনিক ছোরা এবং ছিনতাইকৃত পার্স ব্যাগ উদ্ধার করতঃ উপস্থিত সাক্ষীদের উপস্থিতিতে জব্দ তালিকা মূলে জব্দ করেন।

ছিনতাইকারী মোঃ হানিফের সহযোগী হিসাবে রাজন(২৫) পিতা-অজ্ঞাত সাং-আই-ব্লক, ১নং রোড, শাহজালাল উপশহর, থানা-শাহপরাণ (রহঃ) জেলা-সিলেট অদূরে ছিল। রাজন প্রায়ই ছিনতাই করে এবং ঘটনায় ব্যবহৃত উদ্ধারকৃত ছোরাটি সে সরবরাহ করেছে।

আসামীদ্বয় পরষ্পর যোগসাজসে বাদীর সহকর্মী মাহফুজা খানমের পার্স ব্যাগ, নগদ টাকা, মোবাইল ছিনতাই এবং অত্যাধুনিক ধারালো ছোরা দ্বারা অপর সহকর্মী আব্দুর রহিমকে আঘাত করে ঘটনাস্থলে ত্রাস সৃষ্টি করে পালিয়েছে।

এই সংক্রান্তে শাহপরাণ(রহ:) থানার মামলা নং-১১, তারিখ-১০/০৬/১৮খ্রিঃ ধারা-আইন শৃঙ্খলা বিঘ্নকারী অপরাধ (দ্রুত বিচার) আইন ২০০২ সংশোধনী-২০০৯ এর ৪/৫ রুজু করা হয়। এসআই’ রাজীব কুমার রায় সঙ্গীয় এএসআই’মোঃ হেলাল উদ্দিন সহ ফোর্সের সহায়তায় আসামী ২। রাজন(২৫) পিতা-মৃত খোরশেদ আলম, সাং-ব্লক-এফ, ১নং রোড, বাসা নং-১৩, বুলবুল মিয়ার বাসা, শাহজালাল উপশহর, থানা-শাহপরাণ (রহঃ) জেলা-সিলেটকে গ্রেফতারের জন্য পুলিশী অভিযান করাকালে অদ্য-১১/০৬/১৮খ্রিঃ তারিখ অনুমান ০২:৩০ ঘটিকার শাহপরাণ(রহঃ) থানাধীন শাহজালাল উপশহরস্থ ব্লক-এফ, ১নং রোড, বাসা নং-১৩, বুলবুল মিয়ার বাসায় অভিযান পরিচালনা করে আসামী মোঃ রাজন মিয়া’কে আটক করতে সক্ষম হন।

পরবর্তীতে তার দেহ তল্লাশী করে বাম কানে নীল পলিথিনে মোড়ানো ০১ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট এবং তার পরিহিত প্যান্টের ডান পকেট হতে ০৫ (পাঁচ) পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ সর্বমোট ০৬ (ছয়) পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করে জব্দ তালিকা মূলে জব্দ করা হয়।

উক্ত মাদকদ্রব্য উদ্ধারের বিষয়ে আসামী মোঃ রাজন মিয়া (২৫) এর বিরুদ্ধে শাহপরাণ (রহঃ) থানার মামলা নং-১২, তারিখ-১১/০৬/১৮খ্রিঃ ধারা-১৯৯০ সনের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনের ১৯(১) এর ৯(ক) রুজু হয়। গ্রেফতারকৃত আসামীকে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়ছে।

কমেন্ট
শেয়ার করুন
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    1
    Share