সুনামগঞ্জের শহরের বিভিন্ন সড়কে বাড়ছে দুর্ভোগ

নিজস্ব প্রতিনিধি :: সুনামগঞ্জের শহরের বিভিন্ন সড়কের ওপর ফেলে রাখা হচ্ছে নির্মাণসামগ্রী।আবার কোথাও কোথাও সড়ক দখল করেই চলছে নির্মাণকাজ। এতে সংকুচিত হয়ে পড়েছে সড়কগুলো। যানজট সৃষ্টি হওয়ার পাশাপাশি প্রায়ই ঘটছে দুর্ঘটনা। ঈদের আগ মুহূর্তে যানজট আরো বাড়বে বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, শহরের ষোলঘর পয়েন্ট, রামকৃষ্ণ আশ্রম এলাকা, হাসপাতাল রোড, হাছননগর এলাকার মূল সড়কে ইট, বালু, সিমেন্ট ও পাথরসহ বিভিন্ন নির্মাণসামগ্রী রাখা হয়েছে। সড়কে নির্মাণসামগ্রী রেখেইে ভবনের নির্মাণকাজ চলছে। এতে যানজট ও দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছেন পথচারীরা। সড়কের ওপর এভাবে কাজ করতে গিয়ে শ্রমিকরাও নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন।

শহরবাসী বলছেন, সড়কে যত্রতত্রভাবে বালু, পাথর, ইট, রডের মতো নির্মাণসামগ্রী ফেলে রাখার কারণে সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে তাদের। একটু রোদ হলেই নির্মাণসামগ্রী থেকে ধুলো উড়ছে। বিশেষ করে শিশুরা এই সড়কগুলো দিয়ে চলাচল করার সময় বেশি ভোগান্তিতে পড়ছে।

ষোলঘর এলাকার এক বাসিন্দা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, আইন অনুযায়ী সড়কে ইট, বালু, সিমেন্ট ও পাথরসহ বিভিন্ন নির্মাণসামগ্রী রাখা বেআইনি। কিন্তু তারপরও এ বিধান কেউ মানছেন না। আবার আইন ভঙ্গকারীদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নিচ্ছে না সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।
শহরের জামতলা এলাকার সাজ্জাদ হোসেন নাহিদ বলেন, দীর্ঘদিন ধরেই শহরের বিভিন্ন স্থানে সড়ক দখল করে নির্মাণসামগ্রী ফেলে রেখে ভবন নির্মাণের রেওয়াজ তৈরি হয়েছে। ফেলে রাখা নির্মাণসামগ্রীর কারণে আর ছোট-খাটো দুর্ঘটনা, ভোগান্তি তো এখন নিত্যদিনের সঙ্গী।

হাসননগর এলাকার রফিকুল ইসলাম বলেন, ঈদের আগে সড়ক থেকে নির্মাণসামগ্রী সরানো উচিত, না হলে যানজট তৈরি হবে এবং ঈদের কেনাকাটা করতে আসা সাধারণ মানুষ ভোগান্তিতে পড়বে।
এ ব্যাপারে জানতে সুনামগঞ্জ পৌরসভার মেয়র নাদের বখত-এর মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি।

কমেন্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published.