দক্ষিণ কোরিয়ার ‘অযৌক্তিক’ প্রস্তাব ফিরিয়ে দিল উত্তর কোরিয়া

আন্তর্জাতিক ডেস্ক::দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট ইউন-সক ইয়ল বৃহস্পতিবার প্রস্তাব দেন, যদি উত্তর কোরিয়া তাদের পারমাণবিক কার্যক্রম বন্ধ করে দেয় এবং ধীরে ধীরে পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ পন্থা অবলম্বন করে তাহলে উত্তর কোরিয়াকে আর্থিক ও বাণিজ্যিকভাবে সহায়তা করবে দক্ষিণ কোরিয়া। এর মাধ্যমে উত্তর কোরিয়ার সাধারণ মানুষের খাদ্যকষ্ট দূর হবে।

তবে দক্ষিণ কোরিয়ার এ প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছে উত্তর কোরিয়া।

দেশটির প্রেসিডেন্ট কিম জং উনের ছোট বোন কিম ইয়ো-জং উল্টো এ প্রস্তাবের তীব্র সমালোচনা করে বলেছেন, এটি দক্ষিণ কোরিয়ার একটি ‘অযৌক্তিক’ প্রস্তাব।

তিনি আরও বলেছেন, কেউ ময়দার কেকের জন্য তাদের ভবিষ্যত বিনিময় করে না।

কিম জং উনের ক্ষমতাধর এ বোন আরও বলেছেন, দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্টের ‘মুখ বন্ধ’ রাখা উচিত। দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্টকে ‘সরল ও বাচ্চা’ বলেও অভিহিত করেন তিনি।

এদিকে উত্তর কোরিয়ার কাছ থেকে এমন মন্তব্য আসার পর বিষয়টি নিয়ে প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়া। তারা বলেছে, এটি হতাশাজনক। তবে তাদের পক্ষ থেকে যে প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে সেটিতে এখনো অটুট আছেন।

দ্বিতীয় বিশ্ব যুদ্ধের পর দুই ভাগ হয়ে যায় কোরিয়া উপদ্বীপ। দক্ষিণ কোরিয়া গণতান্ত্রিক পথ বেঁছে নেয় এবং তারা উন্নতি করে। অন্যদিকে উত্তর কোরিয়া কমিউনিস্ট শাসন কায়েম করে। কিন্তু পারমাণবিক কার্যক্রম চালানোর কারণে তাদের ওপর বিভিন্ন নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে পশ্চিমা দেশগুলো। যে কারণে উত্তর কোরিয়ার মানুষকে খাদ্যভাবে ভুগতে হয়।

সূত্র: বিবিসি

কমেন্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published.