চীনকে ঠেকাতে এবার হাউইটজার কামান নিয়ে তাইওয়ানের মহড়া

আন্তর্জাতিক ডেস্ক::  চীনের মহড়ার জবাব দিতে এবার হাউইটজার কামান নিয়ে সামরিক মহড়া শুরু করেছে তাইওয়ানের সেনাবাহিনী। যুদ্ধের পরিস্থিতিতে কীভাবে চীনের সেনা বাহিনীকে মোকাবেলা করা যাবে তা নিয়েই মঙ্গলবার থেকে তাইওয়ান মহড়া শুরু করেছে বলে বার্তা সংস্থা এএফপি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে।

এএফপির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মঙ্গলবার থেকে শুরু হওয়া সামরিক মহড়ায় ‘লাইভ ফায়ার ড্রিল’ অর্থাৎ আসল গোলা ছুঁড়ে লড়াইয়ের কৌশল ঝালিয়ে নিচ্ছে স্বশাসিত দ্বীপরাষ্ট্রটির গোলন্দাজ বাহিনী।

এ ব্যাপারে তাইওয়ানের সেনার অষ্টম আর্মি কোরের মুখপাত্র লউ ওয়েই জাই জানিয়েছেন, দেশের দক্ষিণাঞ্চলের পিংটাং প্রদেশে সামরিক মহড়া শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার ও বৃহস্পতিবার এই দু’দিন চীনের বাহিনীর বিরুদ্ধে লড়াইয়ের কৌশল ঝালিয়ে নেওয়া হবে।

তাইওয়ানের সেনাবাহিনী জানিয়েছে, এই মহড়ায় অংশ নিচ্ছে প্রায় ৪০টি হাউইটজার কামান ও হাজারেরও বেশি সেনা।

এদিকে, যুক্তরাষ্ট্রের হাউজ স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি গত মঙ্গলবার তাইওয়ান সফরে আসার পর তাইওয়ানকে ঘিরে ছয়টি স্থানে সামরিক প্রশিক্ষণ চালাচ্ছে চীন।

সাবমেরিন দিয়ে কিভাবে হামলা করা হবে এবং সমুদ্রে কিভাবে হামলা করা হবে সোমবার এ বিষয়ে মহড়া দিচ্ছে চীনের সেনারা। পিপলস লিবারেশন আর্মি বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

অন্যদিকে ন্যান্সি পেলোসি তাইওয়ানে আসায় যুক্তরাষ্ট্রের সেনা পর্যায়ে সব ধরনের আলোচনা স্থগিত করে দিয়েছে চীন। এ বিষয়টির কড়া সমালোচনা করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

কিন্তু চীনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে তাদের সিদ্ধান্ত ঠিক আছে। কারণ যুক্তরাষ্ট্র উস্কানি দেওয়ায় চীন এ সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হয়েছে।

এ ব্যাপারে চীনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র উ কুইয়েন সোমবার একটি অনলাইন পোস্টে বলেছেন, তাইওয়ান প্রণালীতে বর্তমান উত্তেজনাকর পরিস্থিতি সম্পূর্ণভাবে উস্কানি দিয়েছে ও তৈরি করেছে যুক্তরাষ্ট্র। তাদের এর সব দায় দায়িত্ব নিতে হবে এবং এরজন্য কঠিন পরিণতি ভোগ করতে হবে।

কমেন্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published.