একনেকে ১৫ হাজার ৮৫৬ কোটি টাকার ৮ প্রকল্প অনুমোদন

নিউজ ডেস্ক:: জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক) প্রায় ১৫ হাজার ৮৫৬ কোটি ৮০ লাখ টাকা ব্যয়সংবলিত আটটি প্রকল্প অনুমোদন করেছে।

এর মধ্যে সরকারি তহবিল থেকে ১২ হাজার ৪৪৪ কোটি ২৫ লাখ টাকা, বৈদেশিক সহায়তা থেকে তিন হাজার ২৭৭ কোটি ৯৮ লাখ টাকা এবং অর্থনৈতিক সংস্থার নিজস্ব তহবিল থেকে ১৩৪ কোটি ৫৭ লাখ টাকা ব্যয় করা হবে।

মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রী এবং একনেক চেয়ারপারসন শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে একনেকসভায় এসব প্রকল্পের অনুমোদন দেওয়া হয়। প্রধানমন্ত্রী গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে শেরেবাংলা নগরস্থ এনইসি সম্মেলনকক্ষে যুক্ত ছিলেন।
অনুমোদিত প্রকল্পসমূহ হলো— সড়ক পরিবহণ ও সেতু মন্ত্রণালয়ের তিনটি প্রকল্প যথাক্রমে চট্টগ্রাম-রাঙামাটি জাতীয় মহাসড়কের (এন-১০৬) হাটহাজারী থেকে রাউজান পর্যন্ত সড়কাংশ চার লেনে উন্নীতকরণ (১ম সংশোধিত) প্রকল্প, ঢাকা ম্যাস র্যাপিড ডেভেলপমেন্ট (লাইন-৬) (২য় সংশোধিত) প্রকল্প এবং নরসিংদী সড়ক বিভাগের আওতায় ইটাখোলা মঠখোলা-কটিয়াদী সড়ক (আর-২১১) ও নয়াপাড়া আড়াইহাজার নরসিংদী-রায়পুরা (আর-১১৪) দুটি আঞ্চলিক মহাসড়ক যথাযথ মানে প্রশস্ততায় উন্নীতকরণ প্রকল্প; বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ মন্ত্রণালয়ের নির্মাণ প্রকল্প; স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের ইলেকট্রনিক ডাটা ট্র্যাকিংসহ জনসংখ্যাভিত্তিক জরায়ু-মুখ ও স্তন ক্যান্সার স্ক্রিনিং কর্মসূচি (ইপিসিবিসিএসপি) (২য় সংশোধিত) প্রকল্প; পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের খাগড়াছড়ি শহর ও তৎসংলগ্ন অবকাঠামো নদীভাঙন থেকে সংরক্ষণ প্রকল্প; স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের দুটি প্রকল্প যথাক্রমে উপজেলা পরিচালন ও উন্নয়ন (UGDP) (২য় সংশোধিত) প্রকল্প এবং বৃহত্তর দিনাজপুর জেলার গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্প।

পরিকল্পনা কমিশনের ভাইস চেয়ারম্যান ও পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান, কৃষিমন্ত্রী মো. আব্দুর রাজ্জাক; তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী মোহাম্মদ হাছান মাহমুদ, স্থানীয় সরকারমন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম, শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি; শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন; মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম; পরিবেশ, বন ও জলবায়ুমন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন এবং সংশ্লিষ্ট মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীরা সভার কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করেন।

সভায় মন্ত্রিপরিষদ সচিব, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব, এসডিজির মুখ্য সমন্বয়ক, পরিকল্পনা কমিশনের সদস্যবৃন্দ, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়সমূহের সিনিয়র সচিব ও সচিব এবং ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
সভাশেষে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান।

এ সময় তিনি জানান, মেট্রোরেলের গুরুত্বপূর্ণ স্টেশনে পার্কিং ব্যবস্থা চালু করার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। সেই সঙ্গে কমলাপুর স্টেশন থেকে বিমানবন্দর পর্যন্ত ইন্টারলিংক ট্রেন সার্ভিস এবং প্রয়োজনে আন্ডারপাস নির্মাণের নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। একই সঙ্গে স্থানীয় সরকার বিভাগের আওতায় নির্মিত সড়কের মান রক্ষার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

কমেন্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published.