টিএসসির কাওয়ালি অনুষ্ঠানে ছাত্রলীগের হামলা, ভাঙচুর

সিলেট নিউজ টাইমস্ ডেস্ক:: প্রশাসনের অনুমতি নিয়ে করা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসিতে কাওয়ালি অনুষ্ঠানে হামলা চালিয়েছে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। এসময় তারা আয়োজকদের উপর হামলা করে এবং স্টেজ ও চেয়ার ভাঙচুর করে। বুধবার সন্ধ্যায় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা এই হামলা চালায়।

আয়োজকদের অভিযোগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেনের নেতৃত্বে নেতাকর্মীরা এই হামলা চালায়। এতে বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে বলে জানা যায়।

তারা জানান, গত সপ্তাহে তারা টিএসসির পরিচালক আকবর হোসেনের অনুমতি নেয়। এরপর তাদের কার্যক্রম শুরু করে। আজ দিনের মধ্যে স্টেজের কার্যক্রম সম্পন্ন করলেও বিকেলে সাউন্ড সিস্টেমের কাজ শুরু করার কথা ছিল। কিন্তু সাউন্ড সিস্টেমের দায়িত্বে থাকা তৈয়েব জানান, সাদ্দাম হোসেন তাকে নিষেধ করেন। পরে তারা অন্য জায়গা থেকে সাউন্ড সিস্টেম ভাড়া করে আনে। এর আগেই সাদ্দাম হোসেনের অনুসারী বিভিন্ন হলের নেতাকর্মীরা এসে অনুষ্ঠানে হামলা করে। এতে তাদের বেশ কয়েকজন আহত হন।

আয়োজকদের অন্যতম হুজাইফা বলেন, আজকে আমরা কাজ শুরু করার আগে টিএসসির পরিচালক আকবর তাদেরকে জানান, সাদ্দাম ফোন দিয়ে এই প্রোগ্রাম করতে নিষেধ করেছে। তিনি আমাদের সাদ্দামের সঙ্গে কথা বলতে বলেন। পরে সাদ্দাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রোক্টরকে দিয়েও অনুষ্ঠানটি না করতে চাপ প্রয়োগ করে।

যদিও আমরা প্রোগ্রামটি করার চেষ্টা করি। সাদ্দাম হোসেন কোনভাবে প্রোগ্রামটি বাতিল করতে না পেরে তার ছেলেদের দিয়ে হামলা করায়।

অভিযোগের বিষয়ে সাদ্দাম হোসেন বলেন, আমি এ বিষয়ে অবগত নই। যদিও, এর আগে সাদ্দামের অনুসারীদের একটি ম্যাসেঞ্জার গ্রুপে এই প্রোগ্রামের ব্যাপারে আলোচনা করা হয়। সেখানে তার গ্রুপের জুনিয়র  ছেলেদের টিএসসিতে না যাওয়ার নির্দেশনা দেওযা হয়। একই সঙ্গে তিনি সবাইকে আয়োজকদের ছবি দেন।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রোক্টর অধ্যাপক ড. এ কে এম গোলাম রব্বানী বলেন, কারা হামলা চালিয়েছে জানিনা। হামলাকারীদের চিহ্নিত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের কাওয়ালি ব্যান্ড ‘সিলসিলা’ ও সাধারণ ছাত্রদের উদ্যোগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে প্রথমবারের মতো এমন অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়েছিল।

টিএসসির পায়রা চত্বরে বুধবার সন্ধ্যা ৬টায় এই আসর শুরু হয়। সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও ঢাকা কলেজের কিছু ছাত্র অনুষ্ঠানস্থলে হাজির হয়ে অতর্কিত হামলা চালায়। তারা এ সময় মঞ্চ ভাঙচুর করলে অনুষ্ঠান পণ্ড হয়ে যায়।

হামলায় মাহফিলে আসা শ্রোতা-দর্শক, আয়োজক ও সাংবাদিকসহ অন্তত ২০ জন আহত হয়েছেন বলে অভিযোগ করেছেন আয়োজকরা।

অনুষ্ঠানে ‘সিলসিলা’ ব্যান্ডের লুৎফর রহমান ও খালিদ হাসান আবিদের কাওয়ালি সংগীত পরিবেশন করার কথা ছিল। এ ছাড়া মুর্শিদি-ভাণ্ডারি ধারার সংগীতশিল্পী শেখ ফাহিম ফয়সালেরও গান গাওয়ার কথা বলা হয়েছিল।

কমেন্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published.