সিলেট নগরীতে বেপরোয়া চালকরা নিয়ন্ত্রণহীন ট্রাক,লাগাম ধরবে কে?

সিলেট নিউজ টাইমস্ ডেস্ক:: দিন নেই- রাত নেই, সিলেট নগরীতে বেপরোয়া চালকরা তাদের ট্রাক নিয়ে দাবড়ে বেড়ান নির্দিষ্ট সময় ও আইন না মেনেই। ফলে সপ্তাহে ২/৩ টা বড় দুর্ঘটনার পাশাপশি ঘটে অসংখ্য ছোট দুর্ঘটনা। সর্বশেষ গতকাল (মঙ্গলবার) সন্ধ্যারাতে সুবিধবাজারে বেপরোয়া ট্রাকের ধাক্কায় অকালে প্রাণ হারালেন মুনতাহা আক্তার তানিয়া (২৭) নামের এক গৃহবধূ। তিনি সিলেট নগরীর চৌকিদেখি ৪৩/১ নম্বর বাসার আনোয়ার হোসেনের স্ত্রী।

পাথরসহ বিভিন্ন ধরনের মাল বোঝাই ট্রাক সময়-অসময়ে সিলেট নগরীতে বেপরোয়াভাবে চলাচলের কারণে সৃষ্টি হয় যানজট, ঘটে বড়-ছোট অনেক দুর্ঘটনা। পাশাপাশি স্থানীয় বাসিন্দাদের দুর্ভোগ তো আছেই। এসব সমস্যা সমাধানে গত বছরের অক্টোবরে পুলিশ প্রশাসনের নির্দেশনায় সিলেট সিটি করপোরেশন (সিসিক)-এর পক্ষ থেকে উদ্যোগ নেয়া হয় নগরীর প্রবেশমুখগুলোতে ব্যারিয়ার গেট স্থাপনের। প্রশাসন ও সিসিক’র পক্ষ থেকে সে সময় জানানো হয়েছিলো, সিলেট নগরীতে ট্রাক প্রবেশের জন্য নির্দিষ্ট পথে নির্ধারিত সময়ে এসব গেট খুলে দেওয়া হবে। যেসব সড়কে ট্রাক প্রবেশ নিষিদ্ধ সেগুলো বন্ধ থাকবে। সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের নির্দেশনা অনুযায়ী নগরীর প্রবেশমুখগুলোতে এরকম আটটি গেট লাগানো হবে জানানো হয়েছিলো সে সময়। কিন্তু উদ্যোগটি কিছুদিনের ভেতরেই মুখ থুবড়ে পড়ে। টিলাগড়, আম্বরখানা ও শাহী ঈদগাহ এলাকায় ট্রাকের গতিরোধে কয়েকটি ব্যারিয়ার বসানো হলেও বেপরোয়া ট্রাকের ধাক্কায় সেগুলো কিছুদিনের মধ্যেই ভেঙে যায়। পরে আর এগুলো মেরামত করা বা এ ব্যাপারে কোনো কার্যকর পদক্ষেপও নেয়া হয়নি। যার ফলে আজও অব্যাহত রয়েছে নগরীতে ট্রাকের নিয়ন্ত্রণহীন গতির কারণে দুর্ঘটনা, যানজট ও নগরবাসীর ভোগান্তি।

এর আগে প্রশাসন রাত ১০টার আগে নগরীতে ট্রাক প্রবেশে নিষিদ্ধ করে। এছাড়া নগরীর ভেতরে ট্রাক চলাচলের জন্য নির্দিষ্ট কিছু রাস্তাও নির্ধারণ করে দেওয়া হয়। কিন্তু অধিকাংশ ট্রাকচালকই তা মানেন না। ভেলাগঞ্জ পাথর কোয়ারি থেকে সহস্রাধিক পাথরবোঝাই ট্রাক সন্ধ্যার পর থেকেই বেপরোয়া গতিতে নগরীর আম্বরখানা হয়ে, কিছু ট্রাক শাহী ঈদগাহ সড়ক দিয়ে ঢাকা রোডে আর কিছু ট্রাক সুবিদবাজার হয়ে সুনামগঞ্জ বাইপাস হয়ে ঢাকা রোডে যায়। আজ অবধি লাগাম ধরা যায়নি এসব ঘাতক চালক বা ট্রাকের।

এ ব্যাপারে সিলেট সিটি করপোরেশনের প্রধান প্রকৌশলী নূর আজিজুর রহমান বলেন, পুলিশ প্রশাসন (ট্রাফিক)-এর নির্দেশনায় টিলাগড়, শাহী ঈদগাহ ও আম্বরখানায় কয়েকটি ট্রাকের জন্য ব্যারিয়ার তৈরি করেছিলো সিসিক। কিন্তু পরবর্তীতে এগুলো ট্রাকের ধাক্কায়ই ভেঙে যায়। বিষয়টা আসলে তদারকি করার দায়িত্ব ট্রাফিক বিভাগের। ওরা যদি প্রতি ব্যারিয়ারের কাছে একজন করে সার্জেন্টকে ডিউটির জন্য রাখে তবে উদ্যোগটা সফল হবে বলে আমরা মনে করি। এরপরেও এ ব্যাপারে সিসিক’র পক্ষ থেকে যত ধরনের সহযোগিতা প্রয়োজন আমরা প্রশাসনকে করবো।

এ বিষয়ে মহানগর পুলিশের উপপুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) ফয়সাল মাহমুদের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করে তাকে পাওয়া যায়নি।

উল্লেখ্য, আম্বরখানায় ছাত্রলীগের দুই নেতাকে চাপা দেওয়ার ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতে সুবিদবাজারে গৃহবধূর প্রাণ কেড়ে নিলো ঘাতক ট্রাক। সুবিদবাজারে ট্রাকের ধাক্কায় মারা গেছেন মুনতাহা আক্তার তানিয়া (২৭) নামের এক গৃহবধূ। নিহত তানিয়া সিলেট নগরীর চৌকিদেখি ৪৩/১ নম্বর বাসার আনোয়ার হোসেনের স্ত্রী।

মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। পুলিশ ঘাতক ট্রাক ও চালককে আটক করেছে। মঙ্গলবার রাত ৭টার দিকে নগরীর সুবিদবাজার থেকে রিকশাযোগে চৌকিদেখিস্থ বাসায় যাচ্ছিলেন তানিয়া। সুবিদবাজারের পপুলার ফার্মেসির সামনে আসার পর পেছন থেকে একটি ট্রাক রিকশাকে ধাক্কা দিলে তানিয়া ছিটকে পড়েন।

গুরুতর আহতাবস্থায় তাকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত সাড়ে ৯টায় তিনি হাসপাতালে মারা যান।

কমেন্ট