বিক্ষোভে অংশ নেয়ায় ইউরোপীয়কে বহিষ্কার করল ভারত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক::
ইসলামবিদ্বেষী নাগরিক সংশোধনী আইন বাতিলের দাবিতে বিক্ষোভে যোগ দেয়ায় নরওয়ের এক নারী পর্যটককে ভারত ছাড়তে বাধ্য করেছে দেশটির সরকার। তাকে নিয়ে দ্বিতীয় কোনো ইউরোপীয়কে ভারত থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

৭১ বছর বয়সী জান্নি-মাট্টি জোহানসন শুক্রবার বলেন, পুলিশ তাকে মৌখিক নিশ্চয়তা দিয়েছে যে তিনি বিক্ষোভে অংশ নিতে পারবেন।

ভারতের ২০ কোটি মুসলমানকে কোণঠাসা করতেই উগ্র হিন্দুত্ববাদী প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সরকার এই আইনটি প্রণয়ন করেছে বলে সমালোচকরা দাবি করেন।

তিনি বলেন, বৃহস্পতিবার ভারতীয় অভিবাসন কর্মকর্তারা জেরা করতে আমার হোটেল কক্ষে আসেন। তারা আমাকে মানসিক নির্যাতন করেন। আজ আবার তারা আমার হোটেলে দেখা দিয়ে আমাকে ভারত ছাড়তে বলেছেন, নতুবা আমার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নিয়ে দেশ থেকে বের করে দেয়ার হুমকি দিয়েছেন।

দক্ষিণাঞ্চলীয় রাজ্য কেরালায় বিক্ষোভ থেকে ফেসবুকে ছবি পোস্ট করেছেন ওই নারী। শুক্রবার সন্ধ্যায় তিনি ভারত থেকে দুবাই রওনা করেন। সেখান থেকে সুইডেনে উড়াল দেবেন বলে জানা গেছে।

ভারতে ইউরোপীয় পর্যটকদের ভিসা দরকার হয়। বিদেশিদের আঞ্চলিক নিবন্ধন কার্যালয়ের এক কর্মকর্তার বরাতে প্রেস ট্রাস্ট অব ইন্ডিয়া বলছে, জোহানসন ভিসা নীতিমালা লঙ্ঘন করেছেন।

কোচি বিমানবন্দরের কর্মকর্তা অনুপ ক্রিসনা বলেন, ভিসা শর্ত লঙ্ঘন করে নরওয়ের ওই নারী বিক্ষোভে অংশ নিয়েছেন। কাজেই যত দ্রুত সম্ভব তাকে দেশ ছেড়ে যেতে বলা হয়েছে। যে পর্যটন ভিসায় তিনি ভারতে এসেছেন, তাতে বিক্ষোভে অংশ নেয়ার সুযোগ নেই।

কিন্তু এ বিষয়ে জানতে ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কিংবা নরওয়ের দূতাবাসে যোগাযোগ করা হলে কোনো সাড়া পাওয়া যায়নি।

কমেন্ট