সাইবার অপরাধ প্রতিরোধে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে: আশফাক আহমদ

সিলেট সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও আম্বরখানা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ গভর্নিং বডির সভাপতি আশফাক আহমদ বলেছেন, সাইবার অপরাধ প্রতিরোধে সচেতনতা সব চেয়ে বড় ভূমিকা রাখতে পারে। ব্যক্তি সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে শিক্ষার্থীদের সচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে। আমরা সবচেয়ে বেশি সাইবার অপরাধের শিকার হই আমাদের খুব কাছের মানুষদের দ্বারা। শিক্ষার্থীরা নিজেরা সাইবার অপরাধ বিষয়ে সচেতন হবেন এবং সহপাঠীদের সচেতনত করবেন তবেই এ অপরাধ বন্ধ করা সম্ভব। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সাইবার অপরাধ দিনদিন বেড়ে চলছে। এ থেকে উত্তরণে সমাজে নৈতিক শিক্ষার চর্চা বাড়াতে হবে। এছাড়াও ইন্টারনেটে গুজব ছড়ানো প্রতিরোধ, প্রযুক্তি ব্যবহারে সচেতনতা তৈরি, আচরণগত পরিবর্তন ও সুরক্ষার সংস্কৃতি গড়ে তোলার তাগিদ দেন।

তিনি সোমবার দুপুরে সিলেট নগরীর আম্বরখানা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজে কন্ট্রোলার অব সার্টিফায়িং অথরিটিজ (সিসিএ) আয়োজিত ডিজিটাল নিরাপত্তা মেয়েদের সচেতনতা শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।

কলেজের অধ্যক্ষ সৈয়দ মুহাদ্দিস আহমদের সভাপতিত্বে ও সহকারী প্রধান শিক্ষক জহুরা বেগমের সঞ্চালনায় সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সিসিএ কার্যালয়ের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের তদন্ত কর্মকর্তা মো. শরিফুল ইসলাম।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সদর উপজেলা মাধ্যামিক শিক্ষা কর্মকর্তা গোলাম রব্বানি মজুমদার, কলেজের অধ্যাপক মো. জমির উদ্দিন, আইসিটি প্রভাষক রেজাউর রহমান। শুরুতে পবিত্র কুরআন থেকে তেলাওয়াত করেন শিক্ষার্থী সুমাইয়া জাহান নাবিলা ও গীতা পাঠ করেন মৌলী সরকার।

কমেন্ট