বঙ্গবন্ধু স্বাধীনতার, শেখ হাসিনা বাংলাদেশে শান্তি ও উন্নয়নের স্থপতি

94 total views, 1 views today

সিলেট-১ আসনে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোট মনোনীত প্রার্থী, ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম না হলে এদেশ স্বাধীন হতো না। তিনি যেমন স্বাধীনতার স্থপতি, তাঁর সুযোগ্য কন্যা বাংলাদেশের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এদেশের শান্তি ও উন্নয়নের স্থাপতি।

তিনি শুক্রবার (২১ ডিসেম্বর) সিলেট নগরীর বিভিন্ন স্থানে নির্বাচনী গণসংযোগ ও মতবিনিময় সভায় একথা বলেন।
ড. মোমেন বলেন, বাংলাদেশের ঐতিহাসিক সকল উন্নয়ন ও সফলতার গল্প দেশরতœ শেখ হাসিনার হাত ধরেই রচিত হয়েছে। আমরা আগে যা ভাবতেও পারিনি, চ্যালেঞ্জ গ্রহণ সেই সব উন্নয়ন কর্মকান্ড বাস্তবায়ন করেছেন তিনি। এটা কেবল ম্যাজিকম্যান দ্বারাই সম্ভব।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান দেশ স্বাধীন করে একটি সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠার স্বপ্ন দেখেছিলেন। কিন্তু, একাত্তরের পরাজিত শক্তি সেটাকে মেনে নিতে পারেনি। পঁচাত্তরের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে স্বপরিবারে হত্যা করে শতবছর পিছিয়ে দিয়েছিল।

তিনি আরও বলেন, বিএনপি-জামায়াত, স্বৈরাচারী দুঃশাসনে বাংলাদেশ বিশ্বের কাছে জঙ্গি, সন্ত্রাস, দুর্নীতির দুর্নাম নিয়ে একটি তলাবিহীন ঝুঁড়ি হিসেবে পরিচিতি পেয়েছিল। শেখ হাসিনা বিগত দশ বছর শেখ হাসিনা ক্ষমতায় থাকার ফলে সকল কলঙ্ক মোচন করে আজ একটি মর্যাদাশীল জাতি হিসেবে বিশ্বে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে আমরা সক্ষম হয়েছি।
ড. এ কে মোমেন বলেন, শেখ হাসিনা জীবনের চরম ঝুঁকি নিয়ে দেশের উন্নয়ন ও কল্যাণে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। যার সুফল দেশের প্রতিটি মানুষ প্রতিটি ক্ষেত্রে আজ ভোগ করছে। এই ধারাবাহিকতা বজায় থাকলে খুব কম দিনের মধ্যে বাংলাদেশ উন্নত জাতি হিসেবে বিশ্বে স্থান করে নেবে।

সিলেটসহ সারাদেশের উন্নয়নে অবদানের জন্য শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে তিনি বলেন, সিলেটে বিগত দশবছরে হাজার হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন হয়েছে। ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে গেছে। শিক্ষা, স্বাস্থ্য, যোগাযোগ সর্বক্ষেত্রে অভাবনীয় সাফল্য অর্জিত হয়েছে। মানুষের মৌলিক অধিকার নিশ্চিত হয়েছে। সিলেটসহ সারাদেশের মানুষ এখন শান্তিতে আছে।
শান্তি ও উন্নয়নের এই ধারা বজায় রাখতে, শনিবার (২২ ডিসেম্বর) সিলেটে শেখ হাসিনার জনসভা সফল করতে এবং আগামী ৩০ ডিসেম্বর নৌকার বিজয় নিশ্চিত করতে তিনি সিলেটবাসীর প্রতি আহ্বান জানান।
ড. মোমেন শুক্রবার সকালে নগরীর আম্বরখানায় মনিপুরীপাড়া, দরগাহ গেইট, আম্বরখানা বাজার এলাকায় গণসংযোগ করেন। বাদ জুমআ নগরীর শেখঘাট ও কাজিরবাজার এলাকায় গণসংযোগ করেন।
সকালে ড. মোমেন মনিপুরীপাড়ায় পৌঁছালে চন্দ্রকলা দেবী এগিয়ে এসে ড. মোমেনকে আশির্বাদ করেন। এ সময় ড.মোমেন দেশের উন্নয়নের স্বার্থে নৌকা প্রতীকে ভোট দেওয়ার আহবান জানান।

এসময় উপস্থিত ছিলেন সিলেট জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী, সহ-সভাপতি আশফাক আহমদ, যুগ্ম সম্পাদক ফয়জুল আনোয়ার আলাউর, এডভোকেট নাসির উদ্দিন খান, সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল, যুবলীগের আহ্বায়কা আলম খান মুক্তি, ইলিয়াস আহমদ জুয়েল, বিলাল খান, এমএ খান শাহীন, আজহার উদ্দিন জাহাঙ্গীর, পিযুষ কান্তি দে, মনিপুরি সম্প্রদায়ের মধ্যে ছিলেন শতবর্ষী নারী চন্দ্র কলা দেবী, পঞ্চু সিংহ, শংকর সিংহ, অমিত সিংহ, পকেওম সিংহ, মনোরঞ্জন দাস, প্রদীপ সিংহ, রনি কুমার সিংহ, রমেশ মুন্ডা, বিকাশ রঞ্জন মুন্ডা, নিতাই, পথিক পাল, প্রদীপ পাল, মাখন পাল, এম এ সালাম, দীলিপ ঋষি প্রমুখ।

কমেন্ট
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •