সিলেট বিভাগীয় পর্যায়ে মনোমুগ্ধকর অ্যাক্রোবেটিক প্রদর্শনী

99 total views, 1 views today

‘অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রায় শিল্প নিয়ে পৌঁছে যাবো আমরা উন্নতির শিখরে’ এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের পৃষ্ঠপোষকতায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির আয়োজনে এবং জেলা শিল্পকলা একাডেমি, সিলেট-এর ব্যবস্থাপনায় ৮টি বিভাগীয় শহরে অ্যাক্রোবেটিক প্রদর্শনীর অংশ হিসেবে আজ (২০ নভেম্বর) সন্ধ্যা ৫:৩০টায় সিলেট বিভাগীয় পর্যায়ের অ্যাক্রোবেটিক প্রদর্শনীটির আয়োজন করা হয় নগরীর পূর্ব শাহী ঈদগাহস্থ সিলেট জেলা শিল্পকলা একাডেমি প্রাঙ্গণে।

বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি অ্যাক্রোবেটিক দলের সমন্বয়কারী মুসা রুবেলের ধারা বর্ণনায় বিশ্বের অন্যতম জনপ্রিয় মাধ্যম অ্যাক্রোবেটিক প্রদর্শনীটি সিলেটের দর্শকদের রোমাি ত ও পুলকিত করে। পিনপতন নীরবতা ও মুহুর্মহুর করতালিতে প্রশংসিত হয় সিলেট জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে আয়োজিত এই প্রদর্শনীটি। চমৎকার ম নির্মাণ ও সজ্জা এবং চোখ ধাঁধানো পরিবেশনায় মুগ্ধ হয় আগত মাঠ ভর্তি দর্শক।

 

একাডেমি প্রাঙ্গণে বিভিন্ন পর্যায় ও শ্রেণি-পেশার মানুষের উপস্থিতিতে মনে হয়েছিল এ যেন এক উৎসবমুখর পরিবেশে মানুষের মিলনমেলা। অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রায় বাংলাদেশের এগিয়ে চলার পথে এবং সুস্থ, সুন্দর ও সংস্কৃতি বান্ধব জাতি বিনির্মাণে এই আয়োজন মুখ্য ভূমিকা পালন করবে বলে আগত দর্শকদের সকলেই মনে করেন। অ্যাক্রোবেটিক প্রদর্শনীর পূর্বে সংক্ষিপ্ত উদ্বোধনী আয়োজনে সিলেটের জেলা প্রশাসক এম কাজী এমদাদুল ইসলামের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন সিলেট বিভাগীয় কমিশনার মোহাম্মদ মেজবাহ্ উদ্দিন চৌধুরী। এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন জেলা কালচারাল অফিসার অসিত বরণ দাশ গুপ্ত। আবৃত্তিশিল্পী আবু বকর মো. আল আমিনের সালনায় অনুষ্ঠানে অন্যান্য অতিথিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (রাজস্ব) মৃনাল কান্তি দেব; স্থানীয় সরকার সিলেট বিভাগের পরিচালক মো: মতিউর রহমান; অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) মো: তাহমিদুল ইসলাম; উপপরিচালক স্থানীয় সরকার সিলেট জেলা মীর মোহাম্মদ মাহবুবুর রহমান; অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) স›দ্বীপ কুমার সিংহ প্রমুখ। অ্যাক্রোবেটিক প্রদর্শনীর পূর্বে জেলা শিল্পকলা একাডেমি, সিলেট-এর সংগীত শিশু ও সাধারণ বিভাগ, নৃত্য সাধারণ বিভাগ দলীয় সংগীত ও নৃত্য এবং সংগীত বিভাগের প্রশিক্ষণার্থীরা একক সংগীত পরিবেশন করেন।

এছাড়াও অ্যাক্রোবেটিক প্রদর্শনী শেষে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি অ্যাক্রোবেটিক দলকে সম্মাননা স্মারক প্রদানের মাধ্যমে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জ্ঞাপন করেন।

কমেন্ট
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •