ওমেরা সিলিন্ডার কোম্পানীতে শ্রমিক ছাঁটাই ঘটনায় শ্রমিকদের বিক্ষোভ :কোম্পানির কাজ বন্ধ করে দিল শ্রমিক

59 total views, 1 views today

আজিজুল ইসলাম সজীব:: হবিগঞ্জের বাহুবল উপজেলায় অবস্থিত ওমেরা সিলিন্ডার কোম্পানীতে বিনা নোটিশে শ্রমিক ছাঁটাই করার ঘটনায় কাজ বন্ধ রেখে শ্রমিকরা ফ্যাক্টরির ভিতরে বিক্ষোভ করছে। এ সময় চাকুরিচ্যুত মোর্শেদ নামের এক শ্রমিকের উপর হামলা করে ফ্যাক্টরীর নিরাপত্তাকর্মীরা।

সোমবার বেলা ৪টার দিকে উপজেলার নতুন বাজারে অবস্থিত ওমেরা কোম্পানীতে এ শ্রমিক অসন্তোষের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে বাহুবল থানার পুলিশ পৌছে শ্রমিকদের শান্ত থাকতে পরামর্শ দিচ্ছে।

জানা যায়, ওমেরায় ফরমিন লাইনের সহকারী অপারেটর মোর্শেদকে বিনা নোটিশে চাকুরিচ্যুত করায় শ্রমিকরা ফুঁসে উঠে। বেলা ১টায় এ খবর পেয়ে শ্রমিকরা কাজ বন্ধ রেখে ফ্যাক্টরীর ভিতরে বিক্ষোভ করতে থাকে।

শ্রমিকরা জানায়, সকাল ৮ থেকে টানা রাত ১০টা পর্যন্ত ডিউটি করে বেতন দেওয়া হয় সর্বোচ্চ ৭ হাজার টাকা। শ্রমিকরা সর্বনিন্ম মজুরি মাসিক ১৫ হাজার টাকা দাবী করলে শুরু হয় শ্রমিক ছাঁটাই।

নির্যাতিত এক শ্রমিক জানায়, সকাল থেকে রাত পর্যন্ত ডিউটি করছি, শ্রম আইন অনুয়ায়ী আমরা কিছুই পাইনা। শ্রম আইন চালু থাকলেও ওমেরা কোম্পানীতে এই আইন কার্যকর করা হয়না। এ ব্যাপারে কিছু বললেই শুরু হয় আমাদের উপর নির্যাতন। বন্ধ করে দেওয়া হয় বেতন ও ভাতাদি।

অন্য আরেক শ্রমিক জানায়, কোম্পানীর কর্তৃপক্ষ আমাদের কাছ থেকে একটি অঙ্গিকার নামায় স্বাক্ষর নিয়েছে। তবে কি কারনে স্বাক্ষর নিয়েছে জানাতে পারেনি শ্রমিক ।

ওমেরা সিলিন্ডার্স কোম্পানীর এডমিন ম্যানেজার বলেন, মোর্শেদ নামের শ্রমিককে চাকুরিচ্যুত করা হয়নি। তাকে ঢাকায় বদলী করা হয়েছে।

ওমেরার এনকেনের পরিচালক সালাউদ্দিন জানান, স্থানীয় শ্রমিক আমাদের ফ্যাক্টরীতে কাজ করে প্রায় ৯৫ পার্সেন্ট। শ্রমিকদের নেতৃত্ব দেয় মোর্শেদ। সে সব শ্রমিকদের একত্রিক করে অবৈধ আবদার করে আমাদের কাছে। তাই কোম্পানীর স্বার্থে তাকে ঢাকায় বদলী করা হয়েছে। এ ধরনের তালিকায় আরো কয়েকজন শ্রমিক রয়েছে, তাদেরকেও পর্যায়ক্রমে বদলী করা হবে।

কোম্পানীর পান্ট ম্যানেজার (পিএম) উৎফুল কুমার দাস সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় বলেন, আমরা উত্তেজিত শ্রমিকদের নিয়ে মিটিংয়ে বসেছি। আমরা মিটিং এর আপনাদের সাথে কথা বলব।

বাহুবল মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাসুক আলী জানান, শ্রমিক অসন্তোষের খবর পেয়ে ফ্যাক্টরীতে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। শুনেছি শ্রমিকরা কাজে কোন ধরনের গন্ডগোল না করার শর্তে তাদের কাছ থেকে একটি অঙ্গিকার নামা নেয়া হয়েছে। গন্ডগোল করলে পরবর্তীতে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

কমেন্ট
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •