আজোও সিলেটের রাস্তায় ‘প্রতিবাদী’ শিক্ষার্থীরা

94 total views, 3 views today

নিজস্ব প্রতিবেদক::
বিমানবন্দর সড়কে বাসচাপায় দুই শিক্ষার্থী নিহত হওয়ার প্রতিবাদে সিলেটে ৫ম দিনের মত সোমবারও (৬ আগস্ট) রাস্তায় অবস্থান নিয়েছে শিক্ষার্থীরা। এতে সিলেটের বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শত শত শিক্ষার্থী অংশ নেয়।

এদিকে আগের দিনগুলোতে শিক্ষার্থীরা দুপুরের পর থেকে রাস্তায় অবস্থান নেয়া শুরু করলেও সোমবার বেলা ১১টার দিকে তারা চলে এসেছে রাস্তায়। টানা আন্দোলনের অংশ হিসেবে সকাল থেকেই তারা সড়কে মানুষ হত্যার প্রতিবাদে নানা ধরণের স্লোগান সংবলিত প্লেকার্ড হাতে নিয়ে একে একে সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে জড় হতে থাকে। সেই সাথে বন্ধ হয়ে যায় নগরীর চৌহাট্টা-জিন্দাবাজার সড়ক।

অপরদিকে আগের দিন তারা বিভিন্ন যানবাহনের কাগজপত্র চেক এবং চালকদের নানা দিক নির্দেশনা দিতে দেখা গেলেও সোমবার নগরীর কোথাও এরকম দৃশ্য দেখা যায়নি। তারা শান্তিপূর্ণভাবে রাস্তায় অবস্থান নিয়ে আছে। এদিকে, ঢাকার বিভিন্ন স্থানে শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার প্রতিবাদ ও বিচার এবং নয় দফা দাবি দ্রুত বাস্তবায়নের দাবিতে সোমবারও (৬ আগস্ট) অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা। দুপুর ১২ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ফটকে অবস্থান কর্মসূচি শেষে শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ মিছিল সহকারে এসে নগরীর চৌহাট্টায় পূর্বে থেকে অবস্থানরত শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে অংশ নিয়েছে।

ক্যাম্পাস সূত্রে জানা যায়, সোমবার সকাল ৯টা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকে অবস্থান নেয় প্রায় অর্ধ সহস্রাধিক শিক্ষার্থী। এসময় তারা নিরাপদ সড়কের দাবিতে এবং ছাত্রদের উপর হামলার সুষ্ঠু বিচারের দাবি জানিয়ে বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকে। অবস্থান চলাকালীন সময়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এছাড়া আন্দোলনের অংশ হিসেবে শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন বিভাগের ক্লাস পরীক্ষা বর্জন করেছে।

এর আগে ২৯ জুলাই রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের সামনের বিমানবন্দর সড়কে জাবালে নূর পরিবহনের একটি বাস শিক্ষার্থীদের চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই শহীদ রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র আবদুল করিম ও একই কলেজের ছাত্রী দিয়া খানম প্রাণ হারান। গুরুতর আহত আরো ১৪ জনকে উদ্ধার করে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনার পর সেই বাসটির চালক মাসুম বিল্লাহকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এ ঘটনা কেন্দ্র করে গত আটদিন ধরে রাজধানীজুড়ে সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করছেন বিভিন্ন স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। শিক্ষার্থী নিহতের ঘটনায় তারা দোষী পরিবহনকর্মীদের বিচার ও নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খানের পদত্যাগসহ ৯ দফা দাবি জানাচ্ছেন।

কমেন্ট
শেয়ার করুন
  • 63
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    63
    Shares