চাকরি স্থায়ীকরণের দাবিতে গ্রামীণ ব্যাংকে বিক্ষোভ

38 total views, 1 views today

নিউজ ডেস্ক:: চাকরি স্থায়ী করার দাবিতে গ্রামীণ ব্যাংক প্রধান কার্যালয় অবরোধ করে বিক্ষোভ করছেন ব্যাংকটির পিয়ন কাম গার্ডসহ চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারীরা। রোববার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে তারা ব্যাংকের মূল ফটকের সামনে অবস্থান নিয়ে স্লোগান দিতে থাকেন। তারা বলছেন, এর আগে এ বিষয়ে প্রতিশ্রুতি দেয়া হলেও কর্তৃপক্ষ কথা রাখেনি।

সরেজমিনে দেখা যায়, মিরপুর-২ এর গ্রামীণ ব্যাংকে সকাল থেকেই পুলিশের ব্যাপক উপস্থিতি ছিল। ব্যাংকটিতে প্রবেশেও কড়াকড়ি ছিল। কর্মকর্তা-কর্মচারী ছাড়া কাউকে ঢুকতে দেয়া হচ্ছিল না।

সকাল সাড়ে ১০টার দিকে হঠাৎ প্রায় শতাধিক লোক ব্যাংকটির সামনে এসে স্লোগান দিতে থাকেন। অনেকে সেখানে বসে পড়েন। পরে পুলিশ তাদের উঠিয়ে দেয়। রাস্তায় না বসে ব্যাংকের ভেতরের খালি জায়গায় বসার কথা বলে পুলিশ।

পুলিশের কথার প্রেক্ষিতে তারা ব্যাংকের প্রধান ফটকের সামনে প্লাস্টিকের তিরপল বিছিয়ে বসে পড়েন। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত এই অবস্থান কর্মসূচি চলবে বলে জানান।

বরিশাল থেকে আগত বিল্লাল হোসেন বলেন, আমি দৈনিক ভিত্তিতে গ্রামীণ ব্যাংকে ৯ বছর থেকে কাজ করি। নিয়ম অনুসারে আমার চাকরি স্থায়ী হওয়ার কথা আরও অনেক আগে। কিন্তু হয়নি।

তিনি বলেন, আমাদের বেতন দেয়া হতো মাত্র ৪০০ টাকা। সম্প্রতি এক প্রজ্ঞাপনে বেতন ২৫ টাকা কমানো হয়েছে। এটা কী করে হয়? মানা যায় না। এর আগে আমাদের দাবি মেনে নেয়া হবে বলে প্রতিশ্রুতি দেয়া হয়েছিল। কিন্তু কর্তৃপক্ষ কথা রাখে না।

নোয়াখালী থেকে আসা আরমান বলেন, আমাদের কোনো বোনাস হয় না। যারা চাকরি ছেড়েছে তাদেন ন্যায্য পাওনা বুঝিয়ে দেয়া হচ্ছে না।

নেত্রকোনা থেকে আগত শরিফ আহামেদ বলেন, আমরা বউ-বাচ্চাদের ঈদসহ বিভিন্ন উৎসবে কিছু দিতে পারি না। তারা মুখের দিকে তাকিয়ে থাকে। মানবিকতা বিবেচনা করে হলেও আমাদের দাবি মানতে হবে।

কর্মসূচিতে আসা অন্যরা অভিযোগ করেন, তারা দীর্ঘদিন ধরে গ্রামীণ ব্যাংকে পিয়ন কাম গার্ড হিসেবে কাজ করছেন। চাকরির ৯ মাস পর স্থায়ীকরণের কথা নিয়োগ বিধিতে বলা থাকলেও তাদের ক্ষেত্রে এ বিধান মানা হচ্ছে না। উপরন্তু গ্রামীণ ব্যাংক কর্মকর্তাদের দ্বারা হয়রানি, কারণ ছাড়াই কাজে যোগদানে বাধা, বিনা বিশ্রামে ২৪ ঘণ্টাসহ নানা ধরনের অমানবিক আচরণের শিকার হচ্ছেন।

তারা দাবি জানান, বাংলাদেশের শ্রম আইন অনুযায়ী বেতন-ভাতা দিতে হবে, গ্রামীণ ব্যাংকের নিয়মানুযায়ী বেতন-ভাতা, প্রভিডেন্ট ফান্ড ও পেনশন দিতে হবে।

কমেন্ট
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •