তারেক রহমান ব্রিটিশ পাসপোর্টের জন্য বাংলাদেশী পাসপোর্ট ত্যাগ করেছেন

নিউজ ডেস্ক:: বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ব্রিটিশ পাসপোর্টের জন্য বাংলাদেশী পাসপোর্ট ত্যাগ করেছেন।তারেক রহমান এখন আর বাংলাদেশের নাগরিক নন, ব্রিটেনের লাল পাসপোর্টের লোভে তারেক বাংলাদেশের সবুজ পাসপোর্ট ত্যাগ করেছেন বলে মন্তব্য করেছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম।

শনিবার সেন্ট্রাল লন্ডনে প্রধান মন্ত্রীর শেখ হাসিনার সম্মানে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগ আয়োজিত সংবর্ধনা সভায় বক্তৃতাকালে তিনি এ মন্তব্য করেন। শাহরিয়ার আলম বলেন, লাল পাসপোর্টের লোভে বাংলাদেশী পাসপোর্ট ত্যাগ করেছেন তারেক, তিনিতো বাংলাদেশের নাগরিকই নন। এমন একজন মানুষকে বিএনপি চেয়ারম্যান করায় তীব্র সমালোচনা করে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী প্রশ্ন তুলেন, বাংলাদেশের পাসপোর্ট ফেরত দেয়া এমন একজন দন্ডিত অপরাধীকে বিএনপি চেয়ারম্যান বানায় কিভাবে। তিনি বলেন, বিএনপি আসলে এখন অস্থিত্ব সংকটে ভুগছে, চেয়ারম্যান করার মত যোগ্য একজন নেতাও নেই তাদের। রাজনৈতিক ভাবে দেউলিয়া এমন একটি দলকে বাংলাদেশের জনগন আর হিসেবেই নেবেনা বলে মন্তব্য করেন শাহরিয়ার আলম। তিনি লন্ডনে বসে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড পরিচালনায় নেতৃত্ব দেয়ায় তারেকের তীব্র সমালোচনা করে বলেন, আদালতের দেয়া দন্ড ভোগের জন্য তাকে বাংলাদেশে ফেরত যেতে হবেই।

বাংলাদেশ হাইকমিশনে পাসপোর্ট জমা দিয়ে বাংলাদেশের নাগরিকত্ব বর্জন করেছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক জিয়া। গতকাল লন্ডনে প্রধানমন্ত্রীকে দেয়া যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এ তথ্য জানিয়েছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম এমপি।

তিনি বলেন, তারেক জিয়া বাংলাদেশের সবুজ পাসপোর্ট হাইকমিশনে জমা দিয়ে বাংলাদেশের নাগরিকত্ব বর্জন করেছেন। সেই তারেক রহমান কিভাবে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতির দায়িত্ব পালন করে?

উল্লেখ্য দীর্ঘ প্রায় ৯ বছর ধরে লন্ডনে রাজনৈতিক আশ্রয়ে আছেন তারেক জিয়া। ১/১১-এর সময়ে রাজনীতি না করার মুচলেকা দিয়ে চিকিৎসার জন্য লন্ডনে এসেছিলেন। এরপর থেকে লন্ডনে বসেই বিএনপির রাজনৈতিক সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন।

সর্বশেষ দলটির চেয়ারম্যান বেগম খালেদা জিয়া জেলে যাওয়ার পর থেকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করছেন তারেক রহমান।

কমেন্ট
শেয়ার করুন
  • 6
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    6
    Shares