রোহিঙ্গা হত্যা : ১০ বছর কারাদণ্ড মিয়ানমারের ৭ সেনার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক::  মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের হত্যার দায়ে দেশটির সাত সেনাকে ১০ বছর করে কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। মিয়ানমার সেনাবাহিনী এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছে। গত বছরের সেপ্টেম্বরে রাখাইন প্রদেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে ১০ রোহিঙ্গা মুসলিমকে হত্যার দায়ে তাদের এ দণ্ড দেয়া হয়েছে।

মিয়ানমারের সেনা প্রধান মিন অং হ্লাইংয়ের ফেসবুক পাতায় প্রকাশিত এক বিবৃতিতে জানানো হয়, সামরিক আদালতে দণ্ডিত এসব সেনা সদস্যদের ১০ বছর কারাভোগের পাশাপাশি প্রত্যন্ত অঞ্চলে কঠোর পরিশ্রমের কাজেও নিযুক্ত থাকতে হবে।

গত বছরের ২৪ আগাস্ট রাতে মিয়ানমার পুলিশের ৩০টি তল্লাশি চৌকি ও একটি সেনা ক্যাম্পে হামলার পর ব্যাপক অভিযান শুরু করে দেশটির সেনাবাহিনী। নির্বিচারে হত্যা, ধর্ষণ, লুটপাট ও অগ্নিসংযোগের ফলে নিজ দেশ ছেড়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিতে শুরু করে রোহিঙ্গারা।

সে সময় দেশটির সেনা সদস্যদের বিরুদ্ধে রোহিঙ্গা নারীদের ধর্ষণ করার অভিযোগ ওঠে। এছাড়া রয়টার্সের এক অনুসন্ধানে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা ওই ১০ জনকে হত্যা করেছে বলে ওঠে আসে। গত ১৮ ডিসেম্বর রাখাইন রাজ্যের রাজধানী সিতভি থেকে প্রায় ৫০ কিলোমিটার উত্তরে উপকূলীয় গ্রাম ইন দিনে গণকবরে ১০ জন রোহিঙ্গার মৃতদেহ পাওয়া যায়। বিষয়টি সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকেও স্বীকার করা হয়। অবশেষে তার দণ্ডও দেয়া হলো।

কমেন্ট
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •