লড়াই করেও শিরোপা হাতছাড়া হল বাংলাদেশের

স্পোর্টস ডেস্ক :: নিদাহাস ট্রফির হাইভোল্টেজ ফাইনালে ভারতের কাছে ৪ উইকেটে হারে শিরোপা হাতছাড়া হল বাংলাদেশের। ইনিংসের শেষ তিন ওভারে জয়ের জন্য ভারতের প্রয়োজন ছিল ৩৫। ১৭তম ওভারে মোস্তাফিজুর রহমান বোলিংয়ে এসে এক রান দিয়ে একটি উইকেট নেন। রুবেল হোসেনের করা ১৮তম ওভারে ২২ রান দেন রুবেল হোসেন।

স্বপ্নপূরণের খুব কাছাকাছি চলে গিয়েছিল বাংলাদেশ। অধরা ট্রফিটা হাতের নাগালেই চলে এসেছিল। শেষরক্ষা হলো না। শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে শেষ বলে ছক্কা হাঁকিয়ে টাইগারদের কাঁদালেন দিনেশ কার্তিক। তার দুর্দান্ত এক ইনিংসে ভর করে নিদাহাস ট্রফির ফাইনালে বাংলাদেশকে ৪ উইকেটে হারিয়েছে ভারত।

১৬৭ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমেই দলীয় ৩২ রানের মাথায় শিখর ধাওয়ানকে ফেরান সাকিব। তার বল মিডউইকেট দিয়ে মারতে গিয়ে বদলি খেলোয়াড় আরিফুল হকের হাতে ধরা পড়েন ধাওয়ান। ৭ বলে ১ ছক্কায় ১০ রান করে যান তিনি। ধাওয়ান ফিরে যাওয়ার পর দলীয় সংগ্রহে আর কোনো রান যুক্ত হওয়ার আগেই সাজঘরে ফেরেন রায়না। রুবেলের বলে এজ হয়ে মুশফিকের হাতে ধরা পড়েন রায়না। ৩ বল মোকাবেলা করে তিনি কোনো রান করতে পারেননি।

ইনিংসের দশম ওভারে রুবেল হোসেনের বলে সাব্বির রহমানের হাতে ক্যাচ হন লোকেশ রাহুল। ১৪ বল খেলে ২৪ রান করেন তিনি।

এরপর দলীয় ৯৮ রানের মাথায় নাজমুল অপুর বলে উড়িয়ে মারতে গিয়ে লং অনে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের হাতে ধরা পড়েন রোহিত শর্মা। বিপজ্জনক এই ব্যাটসম্যান ৪৩ বলে ৪ চার ও ৩ ছক্কায় ৫৬ রান করে যান।

দলীয় ১৩৩ রানে মুস্তাফিজের কাটারে থেমে যায় পাণ্ডের ইনিংস। তিনি থামেন ২২ রানে।শেষদিকে কার্তিকের দৃঢ়তায় শেষবলের ছক্কায় ম্যাচ জিতে ভারত।

কলম্বোর প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে টসভাগ্য ভালো হয়নি সাকিবের। টস জিতে বাংলাদেশকে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানিয়েছে ভারতের অধিনায়ক রোহিত শর্মা।

টস হেরে ব্যাটিংয়ে এসে ৩ ওভারে বিনা উইকেটে ২৬ রান তুলে ভালোই শুরু করেছিলেন দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও লিটন দাস। কিন্তু এরপরই ১১ বলের মধ্যে ফিরেছেন তিন টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান!

লিটন দাসের পর আউট হয়েছেন তামিম ইকবালও। ২৭ রানে দুই ওপেনারের উইকেট হারিয়ে চরম বিপদে পড়ে যাওয়া দলকে খেলায় ফেরানোর আগেই সাজঘরে ফিরে গেছেন সৌম্য সরকারও। সৌম্যের পর মুশফিক-সাব্বিরে প্রতিরোধ গড়লেও বেশিদূর যেতে পারেনি। দলীয় ৬৮ রানেই চাহালের শিকার হলেন মুশফিক।

এরপর সাব্বির-মাহমুদউল্লাহ’র ভুল বোঝাবুঝিতে রান আউটে ফিরলেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

সাকিব আল হাসানকে সঙ্গে নিয়ে সাব্বির আরও যোগ করেন ২৯ রান। ৭ বলে ৭ রান করে রান আউট হন সাকিব। এর আগে ৩৭ বলে ৫ চার ও ২ ছয়ে হাফসেঞ্চুরি করেছেন সাব্বির। উনাদকাট তার শেষ ওভারে জোড়া আঘাত করেন, সাব্বির ও রুবেলকে বিদায় করেন তিনি।

শেষ ওভারে মিরাজ ১৮ রান এনে দেন দলকে। ৭ বলে ১৯ রানে অপরাজিত ছিলেন মিরাজ। ভারতের হয়ে তিন উইকেট শিকার করেছেন চাহাল। দুই উইকেট উনাদকাটের ও ১টি নিয়েছেন ওয়াশিংটন।

এই নিয়ে পাঁচবার ফাইনাল খেলেও একবারও শিরোপা জেতা হয়নি বাংলাদেশের। আজ পঞ্চমবারের মতো যেকোনো ফরম্যাট, যেকোনো টুর্নামেন্টের ফাইনালে হারলো বাংলাদেশ।

ভারত এই আসরে পুরো শক্তির দল না। তারপরও রোহিত শর্মার নেতৃত্বে ফেভারিটের মতোই ফাইনালে উঠেছে তারা। প্রথম ম্যাচে হেরেছিল শ্রীলঙ্কার কাছে। তারপর টানা তিন ম্যাচ জিতে সবার আগে ফাইনাল নিশ্চিত করেছে তারাই। বাংলাদেশকে হারিয়ে শেষ হাসিটাও নিজেদের করে নিয়েছে রোহিত-রায়নারা।

কমেন্ট
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •