শাহজালালের মাটিতে হক্বানী আলেম-উলামাদের রক্ত ঝরানো মেনে নেওয়া যাবে না

28 total views, 1 views today

সিলেটের জৈন্তাপুর উপজেলার হরিপুর বাজার দারুল হাদিস মাদ্রাসার ছাত্র মোজাম্মিল আলী হত্যা ও কওমী আলেম উলামাদের উপর আটরশী বেদাআতী কর্তৃক হামলা এবং সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক দাবীতে ২ মার্চ শুক্রবার সিলেট নগরীতে ব্যাপক বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে কওমী, আলেম উলামারা ও বিভিন্ন মসজিদের মুসলীরা।

বাদ জুম’আ নগরীর বিভিন্ন মসজিদ থেকে ইমাম ও মুসলি­রা মিছিল সহকারে নগরীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ মুহূর্ত মুহূর্ত স্লোগানের মাধ্যমে হত্যার প্রতিবাদ এবং হত্যাকারীদের বিচারের দাবী করেন। রাস্তায় থাকা পথচারীরাও হাত নেড়ে মিছিলের সমর্থন জানান। অনেক সাধারণ মানুষ মিছিলে অংশ নেন। পরে সিটি পয়েন্টে এসে পথ সভায় মিলিত হয়।

হরিপুর বাজার দারুল হাদিস মাদ্রাসার শায়খুল হাদিস ও শাহ আবু তোরাব জামে মসজিদের খতিব মাওলানা আব্দুল কাদির বাগরখালীর সভাপতিত্বে, হাফিজ আব্দুল করিম দিলদার ও হাফিজ শাহিদ আহমদ হাতিমির যৌথ পরিচালনায় বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, এডভোকেট মোহাম্মদ আলী, জামেয়া দারুল উলুম মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা আব্দুল মালিক চৌধুরী, মাওলানা তোফায়ের আহমদ ওসমানী, মাদানী কাফেলা বাংলাদেশের সাধারণ সম্পাদক মাওলানা সালেহ আহমদ শাহবাগী, মাওলানা রফিক আহমদ মহলী, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী হাফিজ কবির আহমদ, ছাত্রনেতা হাফিজ সাব্বির আহমদ রাজি, শাহ সুন্দর মাদ্রাসার সাবেক শিক্ষক মাওলানা লুৎফুর রহমান, মাওলানা ছালিক আহমদ, এম আনোয়ারুল হক, মাওলানা আবুল খয়ের, মাওলানা আমিনুর রশীদ, মাওলানা বিলাল আহমদ, মাওলানা আব্দুল আহাদ আল আতিক, মাওলানা জাহেদ আহমদ, আবু বক্কর সিদ্দিক, হাফিজ জাহেদ আহমদ, শামীম আহমদ, দেলোয়ার হোসেন ইমরান, মাহমুদুল হাসান, ক্বারী হেলাল আহমদ প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, সিলেট শাহজালাল (রহ.) এর পূণ্যভূমির মাটিতে ৩৬০ আউলিয়া সহ অসংখ্য আলাহর ওলিরা শুয়ে আছেন। সিলেটের হক্বানী আলেমরা সারা পৃথিবীতে সুনাম কুড়িয়েছেন। এখনও এ দ্বারা অব্যহত আছে। সেই শাহজালালের মাটিতে দাঁড়িয়ে কেউ হক্বানী আলেম-উলামাদের রক্ত ঝরাবে তা মেনে নেওয়া যাবে না। বক্তারা বলেন, আমরা ইচ্ছা করলে ভন্ড ও আটরশীদের আস্তানা ধুলোয় মিশিয়ে দিতে পারি, কিন্তু আমরা আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। আমরা আইন নিজের হাতে তুলে নিতে চাই না।

আমরা চাই প্রশাসন যথাযথ পদক্ষেপ নিবে। আমাদেরকে দুর্বল মনে করলে ভুল হবে। বক্তারা অবিলম্বে খুনী ও সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী জানান। অন্যথায় যেকোন কঠিন পরিস্থিতির দায়ভার প্রশাসনকেই বহন করতে হবে।

কমেন্ট
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •