জৈন্তাপুরে ওয়াজ মাহফিল নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষ ও ছাত্র খুনের ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন

সিলেটের জৈন্তাপুর উপজেলায় ওয়াজ মাহফিলকে কেন্দ্র করে সৃষ্ট সংঘর্ষ ও এক জন নিহত হওয়ার ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।আজ মঙ্গলবার সিলেট অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ( সার্বিক) শহিদুল ইসলামকে প্রধান করে তিন সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠিত হয়। কমিটিতে রয়েছেন সিলেট অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ( এডিএম)সন্দীপ কুমার সিংহ এবং জৈন্তাপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মৌবিন করিম। কমিটিকে আগামী সাত কার্য দিবসে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।

তদন্ত কমিটির প্রধান অতিরিক্তি জেলা প্রশাসক শহিদুল ইসলাম চৌধুরী জানান, আজ মঙ্গলবার থেকেই তদন্তের কাজ শুরু করেছে তদন্ত কমিটি। সকালেই আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি।

উল্লেখ্য, সোমবার রাত ১১টার দিকে সিলেটের জৈন্তাপুর উপজেলায় ওয়াজ নিয়ে আলিয়া ও কওমি মতাদর্শীদের মধ্যে সংঘর্ষে একজন নিহত হয়েছেন। এতে আহত হয়েছেন অর্ধশতাধিক লোক। রাতে জৈন্তাপুরের আমবাড়িতে সুন্নী মতাদর্শীদের আয়োজিত একটি ওয়াজ মাহফিলকে ঘিরে এ সংঘর্ষ বাধে।

এদিকে সংঘর্ষের জেরে উপজেলার আমবাড়ি, ঝিঙ্গাবাড়ি ও কাঠাল বাড়ি নামের তিনটি গ্রামের বিভিন্ন বাড়িতে হামলা, ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সংঘর্ষে আহতদের কয়েকজনকে জৈন্তাপুর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নিহত মোজাম্মেল হোসেন হরিপুর মাদরাসার ছাত্র।

স্থানীয় সূত্র জানায়, সোমবার রাতে জৈন্তাপুর উপজেলার বাংলাবাজার আমবাড়ি এলাকায় ওয়াজ মাহফিলের আয়োজন করেন আলিয়াপন্থী মতাদর্শের লোকজন। ওয়াজ চলাকালে রাত ১১টার দিকে কওমিপন্থী লোকজন হামলা চালালে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়।

কিছুক্ষণের মধ্যেই এ সংঘর্ষ বৃহৎ আকার ধারণ করে। দু’পক্ষের হাজারো লোক ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। সংঘর্ষের জের ধরে রাত ১২টা থেকে ৩টা পর্যন্ত সিলেট-তামাবিল মহাসড়ক অবরোধ করে যান চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়।

এ ব্যাপারে জৈন্তাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খাঁন মো. মঈনুল জাকির জানান, বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা এড়াতে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

কমেন্ট
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •