আসিয়ানের দূতদের ডেকে মিয়ানমার সীমান্তের ঘটনা জানাল সরকার

নিউজ ডেস্ক:: বাংলাদেশ সীমান্তে মিয়ানমারের গোলাগুলির বিষয়টি ঢাকায় নিযুক্ত অ্যাসোসিয়েশন অব সাউথইস্ট এশিয়ান নেশনসের (আসিয়ান) দেশগুলোর দূতদের জানিয়েছে সরকার। সোমবার (১৯ সেপ্টেম্বর) পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে এসব তথ্য জানা যায়।

রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় ঢাকায় আসিয়ানের যেসব রাষ্ট্রদূত আছেন, তাদের নিয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বৈঠক করেছে বলে মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন। ভারপ্রাপ্ত পররাষ্ট্রসচিব রিয়ার অ্যাডমিরাল (অব.) মো. খুরশেদ আলম মিয়ানমার ইস্যুতে সীমান্তে যে সব কর্মকাণ্ড হচ্ছে, সেগুলো রাষ্ট্রদূতদের জানান।

বৈঠকে ঢাকার অবস্থান পরিষ্কার করা হয়েছে। একইসঙ্গে এ ধরনের ঘটনার যেন পুনরাবৃত্তি না হয়, সেক্ষেত্রে আসিয়ানের সমর্থন চাওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।

বৈঠকে মিয়ানমারে দেশটির সেনাবাহিনীর সঙ্গে বিদ্রোহীদের সংঘাতের জেরে বাংলাদেশের ভূখণ্ডে দফায় দফায় ভারী কামানের গোলা এবং মর্টারের গোলা নিক্ষেপের কথা তুলে ধরা হয়। এসবের জেরে মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূতকে তলবের বিষয়টিও জানানো হয় আসিয়ান কূটনীতিকদের।

ব্রিফিং অনুষ্ঠানে আসিয়ান কূটনীতিকরা বাংলাদেশের শান্তিপূর্ণ অবস্থানকে স্বাগত জানান।

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম সীমান্তে গত শুক্রবার সন্ধ্যা থেকে নতুন করে গোলাগুলি শুরু হয়। ওইদিন রাত ৮টার দিকে একটি মর্টার শেল এসে তুমব্রু সীমান্তের বিপরীতে শূন্যরেখায় পড়ে। এতে এক রোহিঙ্গা যুবকের মৃত্যু হয়।

ওই ঘটনায় এক শিশুসহ পাঁচ রোহিঙ্গা নাগরিক আহত হন। তারা এখন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এ ঘটনায় রোববার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে ঢাকায় নিযুক্ত মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূতকে ডেকে কড়া প্রতিবাদ জানায় ঢাকা।

এর আগে কয়েক দফায় মিয়ানমার থেকে মর্টারশেল ও গোলা এসে পড়ে বাংলাদেশের ভেতরে। ওইসব ঘটনায়ও মিয়ানমার রাষ্ট্রদূতকে ডেকে প্রতিবাদ জানানো হয়।

কমেন্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published.