গাজায় ইসরাইলি হামলা ব্যাপারে যা বলল তুরস্ক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: ফিলিস্তিনের অধিকৃত গাজা উপত্যকায় শুক্রবার ভয়াবহ বিমান হামলার ব্যাপারে মুখ খুলেছে তুরস্ক। ইসরাইলি সেনাদের বিমান হামলার প্রতিশোধ নিতে ইসরাইলে শতাধিক রকেট নিক্ষেপের মধ্যে সেখানে পরিস্থিতি শান্ত রাখার আহ্বান জানিয়েছেন তারা।

তুরস্কের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে রুশ সংবাদমাধ্যম আরটি এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

ইসরাইলের বিমান হামলার ‘তীব্র’ নিন্দা জানিয়ে তুরস্কের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ‘আত্মনিয়ন্ত্রণ ও কাণ্ডজ্ঞান’ প্রয়োগের আহ্বান জানায়। একই সঙ্গে ‘এই ঘটনাগুলো একটি নতুন সংঘাতে পরিণত হওয়ার আগে অবিলম্বে শেষ করার’ উপরও জোর দিয়েছে ইউরোপের মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

তুরস্কের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আরও জানায় হামলায় শিশুসহ বেসামরিক মানুষের প্রাণহানি আমাদের কাছে অগ্রহণযোগ্য মনে হয়। হামলার পর এই অঞ্চলে ক্রমবর্ধমান উত্তেজনা নিয়ে আমরা গভীরভাবে উদ্বিগ্ন।

প্রসঙ্গত, ইসরাইলের বিমান হামলায় পাঁচ বছর বয়সি এক শিশু এবং ২৩ বছর বয়সি এক নারীসহ অন্তত ১০ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন।

ইসরাইলের দাবি, তারা ইসলামিক জিহাদের এক কমান্ডারকে হত্যা করতে ওই হামলা চালিয়েছে।

ইসলামিক জিহাদ গ্রুপের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে তাদের আল কুদস ব্রিগেডের কমান্ডার তায়াসির আল-জাবারি বিমান হামলায় নিহত হয়েছেন। গাজা সিটির ফিলিস্তিন টাওয়ারে ছিলেন তিনি।

ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, ইসরাইলি ওই বিমান হামলায় নারী ও শিশুসহ ১০ জন নিহত এবং আরও ২৩ জন আহত হয়েছেন।

এদিকে, বিমান হামলার প্রতিশোধ নিতে ইসরাইলে শতাধিক রকেট নিক্ষেপ করেছে ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সংগঠন ইসলামি জিহাদ আন্দোলন।

কমেন্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published.