এম.সি এন্ড সরকারি কলেজ এলামনাই সোসিয়েশন অব ইউএসএ ত্রাণ বিতরণ

সিলেটে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে ত্রাণ সামগ্রি বিতরণ অব্যাহত রেখেছে সিলেট এম.সি এন্ড সরকারি কলেজ এলামনাই এসোসিয়েশন অব ইউএসএ ইন্ক।

সোমবার (০৪ জুলাই) সিলেটের জৈন্তাপুর ৬নং ইউনিয়ন পরিষদ প্রাঙ্গনে বন্যা দুর্গত মানুষের মধ্যে বিতরণ করা হয়।

এসময় বক্তব্য রাখেন- সিলেট এমসি এন্ড সরকারি কলেজ এলামনাই এসোসিয়েশন ইউএসএ ইন্ক এর সহ সভাপতি আজিমুর রহমান বুরহান, আজীবন সদস্য ও সম্মিলিত নাট্য পরিষদ সিলেটের সভাপতি মিশফাক আহমদ চৌধুরী মিশু, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য শামসুল আলম সেলিম, অধ্যাপক সুনির্মল কুমার মীন, ৬নং চিকনাগুল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান চৌধুরী এবং এলামনাই এসোসিয়েশন ইউএসএ’র সাবেক সহ যুগ্ম সম্পাদক হোসেন সরওয়ার সাগর।

আরো উপস্থিত ছিলেন, বাংলানিউজের সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট নাসির উদ্দিন, স্টাফ ফটো করেসপন্ডেন্ট মাহমুদ হোসেন, এমসি কলেজের শিক্ষার্থী ও সংস্কৃতি কর্মী রেজাউল করিম রাব্বি, ঊষা কান্ত বিশ্বাস, সৌরভ সরকার প্রমুখ।

ত্রাণ বিতরণকালে বক্তারা বলেন, সিলেটের মানুষ প্রবাসে থাকলেও তাঁদের মন পড়ে থাকে দেশে। যেকোনো ধরণের বিপদে আপদে তারা দেশের মানুষের পাশে এসে দাঁড়ান। সেটা আবারো প্রমাণ করলেন সত্তোর দশেকের এমসি ও সারকারি কলেজের প্রাক্তণ শিক্ষার্থীরা। তারা এই বন্যার সময় এসে মানুষের পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন। বিশেষ করে যুক্তরাজ্য প্রবাসী এমসি এন্ড সরকারি কলেজ এলামনাই এসোসিয়েশন ইউএসএ ইন্ক এর সহ সভাপতি আজিমুর রহমান বুরহান স্বশরীরে উপস্থিত হয়ে বিভিন্ন এলাকায় ত্রাণ ও নগদ অর্থ বিতরণ করে যাচ্ছেন। এরআগে বিয়ানীবাজার-গোলাপগঞ্জ এলাকার বন্যা দুর্গতদের মধ্যে ত্রাণ ও নগদ অর্থ বিতরণ করেছেন। আগামিকাল মঙ্গলবার সুনামগঞ্জে উপদ্রুত এলাকায় বন্যা দুর্গত মানুষের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ করবেন।

দুপুরে এমসি কলেজ প্রাঙ্গণে ত্রাণ বিতরণ পূর্ব এক আলোচনা প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন এমসি কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর মো. সালেহ আহমদ। এসময় উপস্থিত ছিলেন সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ আবুল আনাম মো. রিয়াজ।

তিনি বলেন, এমসি কলেজ ও সরকারি কলেজের প্রাক্তণ শিক্ষার্থী যারা বিদেশে রয়েছেন। তারা সব সময়ই দেশের প্রতি আন্তরিক। বিদেশ অবস্থান করলেও দেশের জন্য তাদের মন কাঁদে। দেশের মানুষের দুঃসময়ে তারা পাশে এসে দাঁড়ান। দেশের জন্য এমন মমত্ববোধ বর্তমান শিক্ষার্থীদের জন্যও একটি শিক্ষা। ত্রাণ বিতরণ ইস্যু ব্যাতিরেকেও সব ভাল কাজে এমসি কলেজের শিক্ষক শিক্ষার্থীরা পাশে থাকবেন বলে মন্তব্য করেন তিনি।

তিনি আরো বলেন, এবার সিলেটের এই ভয়াবহ বন্যা পরিস্থিতিতে দেশ-বিদেশে অবস্থানরত যারাই কাজ করছেন, মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছেন, সবার প্রতি তিনি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন এবং প্রাক্তণ শিক্ষার্থীদের এ ধরণের কার্য্ক্রমগুলোও আগামিতে কলেজের মানবিক কার্যক্রমের অংশ হিসেবে উল্লেখ করে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রতিবেদন আকারে পাঠানো হবে।

কমেন্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published.