ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে সিরিয়ার প্রেসিডেন্টের বৈঠক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদ তার দেশে গৃহযুদ্ধ সৃষ্টির জন্য পশ্চিমা দেশগুলোর তীব্র সমালোচনা করেছেন।

একই সঙ্গে তিনি ইরানকে আঞ্চলিক সমস্যাগুলো সমাধানের অন্যতম প্রধান কারিগর বলে মন্তব্য করেছেন।

সিরিয়া সফররত ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী হোসেইন আমির-আব্দুল্লাহিয়ান শনিবার দামেস্কে তার সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে গেলে প্রেসিডেন্ট আসাদ এ মন্তব্য করেন। খবর ইরনার।

একটি শক্তিশালী প্রতিনিধিদল নিয়ে শনিবার আব্দুল্লাহিয়ান দামেস্কে পৌঁছান। দামেস্ক আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে স্বাগত জানান তার সিরীয়  পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফয়সাল মিকদাদ।

আব্দুল্লাহিয়ানের সঙ্গে সাক্ষাতে প্রেসিডেন্ট আসাদ বলেন, ইরান মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন সংকটের রাজনৈতিক সমাধানের গুরুত্বপূর্ণ অনুষঙ্গ হয়ে উঠেছে দেখে দামেস্ক সন্তুষ্ট। তিনি যুদ্ধ এড়িয়ে অন্য যে কোনো উপায়ে সিরিয়া সংকটের সমাধানকে স্বাগত জানাবেন বলে মন্তব্য করেন।

বাশার আসাদ পশ্চিমা দেশগুলোর সমালোচনা করে বলেন, এসব দেশ সিরিয়াকে আবার যুদ্ধের দিকে ঠেলে দিচ্ছে। ইরানের সঙ্গে তার দেশের সম্পর্ককে ‘কৌশলগত’ আখ্যায়িত করে তিনি বলেন, বিগত ৪০ বছর ধরে এই সম্পর্কের উন্নতি ঘটছে।

এ সময় ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, সিরিয়ার শত্রুরা এ আরব দেশটিকে অস্থিতিশীল করার জন্য নানা ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হচ্ছে। তিনি সিরিয়ার সার্বভৌমত্ব লঙ্ঘন করে দেশটির ওপর ধারাবাহিক ইসরাইলি হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়ে বলেন, মানবাধিকারের কথিত প্রবক্তা পশ্চিমা দেশগুলোর নীরবতা ইসরাইলকে ধৃষ্ট করে তুলেছে।

সাক্ষাতে প্রেসিডেন্ট আসাদকে ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলি খামেনি ও প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসির শুভেচ্ছা পৌঁছে দিয়ে বলেন, সিরিয়ার প্রেসিডেন্টের সাম্প্রতিক তেহরান সফর ছিল দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক শক্তিশালী করার গুরুত্বপূর্ণ টার্নিং পয়েন্ট।

কমেন্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published.