পদ্মা সেতু কত মাত্রার ভূমিকম্প সহ্য করতে পারবে?

নিউজ ডেস্ক:: অবশেষে স্বপ্নের পদ্মা সেতু উদ্বোধনের ক্ষণ গণনা শুরু হয়েছে। দেশের সবচেয়ে বড় অবকাঠামো পদ্মা সেতুর উদ্বোধন হতে যাচ্ছে আগামী শনিবার (২৫ জুন)। উদ্বোধনের প্রাক্কালে পদ্মা সেতুর নানা দিক নিয়ে নতুন করে চর্চা শুরু হয়েছে। প্রশ্ন উঠেছে স্বপ্নের এই সেতু কত মাত্রার ভূমিকম্প সহ্য করতে পারবে তা নিয়ে। 

পদ্মা সেতুর ইঞ্জিনিয়ারিং নকশা করেছে  বিখ্যাত মার্কিন প্রতিষ্ঠান এইসিওএম। যুকরাষ্ট্রের বিখ্যাত জন এফ কেনেডি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর, পার্ল হার্বার মেমোরিয়াল ব্রিজ, আবুধাবি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর, সিঙ্গাপুরের মেরিনা বে, অস্ট্রেলিয়ার সিডনি বিমানবন্দরসহ বিশ্বের অসংখ্যা মেগা প্রকল্পের সঙ্গে জড়িয়ে আছে এই প্রতিষ্ঠানের নাম।

প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক রবিন শ্যাম একটি ম্যাগাজিনে এই সেতু বিশেষজ্ঞ লিখেছেন, পদ্মা সেতু এলাকায় ভূমিকম্পের হিসাব করার সময় দুই প্রক্রিয়া অনুসরণ করা হয়েছে। এক, ব্যবহার্য (অপারেটিং) পর্যায়ের ভূমিকম্পের রেকর্ড। আগামী ১০০ বছরের মধ্যে এই ভূমিকম্প আবার হওয়ার আশঙ্কা আছে। ৬৫ শতাংশ আশঙ্কা সেই ভূমিকম্প আরও ভয়ংকর রূপ নিয়ে আঘাত করবে। দুই, ভূমিকম্প ঘটতে পারে, কিন্তু ঘটবেই সেটা নিশ্চিত করে বলা যায় না, এমন ভূমিকম্পের ৪৭৫ বছরের রেকর্ড হিসেবে ধরা হয়েছে। এ ক্ষেত্রে ১০০ বছরের সেতুর আয়ুষ্কালে ২০ শতাংশ আশঙ্কা আছে এত তীব্র মাত্রার ভূমিকম্প হওয়ার।

পদ্মা নদী ভূমিকম্পপ্রবণ এলাকায় অবস্থিত। পদ্মা সেতু এলাকায় ভূমিকম্পের আশঙ্কা আছে। সে জন্যই ৪৭৫ বছরের রেকর্ড বিবেচনায় নিয়েই পদ্মা সেতু নকশা করা হয়েছে।

পদ্মা সেতুতে ‘ফ্রিকশন পেন্ডুলাম বিয়ারিং’ সক্ষমতা হচ্ছে ১০ হাজার টন। এখন পর্যন্ত কোনো সেতুতে এমন সক্ষমতার বিয়ারিং লাগানো হয়নি। রিখটার স্কেলে ৯ মাত্রার ভূমিকম্পে টিকে থাকার মতো করে পদ্মা সেতু নির্মাণ করা হয়েছে।

কমেন্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published.