সিলেটে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর উদ্যোগে আসছে ত্রাণ ও টাকা

নিউজ ডেস্ক:: সিলেটে ভয়াবহ রূপ নিয়েছে বন্যা। বন্যায় পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন লাখো মানুষ। পানি বৃদ্ধি পেয়ে মূহুর্তের মধ্যে নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হচ্ছে। বন্যার্তদের সহায়তায় নতুন করে আরও খাবার ও নগদ অর্থ বরাদ্দ করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও সিলেট-১ আসনের এমপি ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

সিলেটের বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে যোগাযোগ রাখছেন বলেও জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মোমেন।

শুক্রবার (১৭ জুন) পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, সিলেটের সার্বিক বন্যা পরিস্থিতি বিবেচনায় বন্যার্ত মানুষের মাঝে নগদ ২০ লক্ষ টাকা ও ৮ হাজার ব্যাগ শুকনো খাবার বরাদ্দ দিয়েছে ত্রাণ মন্ত্রণালয়। এর আগে সাড়ে তিন লক্ষ টাকা বরাদ্দ পাওয়া গিয়েছিল।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মোমেন জানান, ইতোমধ্যে বন্যার্তদের উদ্ধার তৎপরতায় মাঠে নেমেছে সেনাবাহিনী। বন্যার্তদের সাহায্যার্থে খাবার প্রদান ও স্বেচ্ছাসেবীদের কাজ করার আহবান জানিয়েছেন তিনি।

শুক্রবার সকাল থেকে সিলেট ও সুনামগঞ্জের ৮টি উপজেলায় সেনাবাহিনীর ৮টি ব্যাটালিয়ান পানিবন্দি মানুষকে উদ্ধারে কাজ শুরু করেছে। সিলেট সদর, কোম্পানীগঞ্জ, সুনামগঞ্জের ছাতক, দোয়ারাবাজার, দিরাই, জামালগঞ্জ উপজেলাসহ মোট ৮টি উপজেলায় কাজ করছে সেনাবাহিনীর সদস্যরা। সেনাবাহিনীর সদস্যরা পানিবন্দি মানুষকে উদ্ধার করে নিরাপদ স্থানে পৌঁছানো, চিকিৎসা সহায়তা, খাবারের ব্যবস্থা, খাদ্য গোদাম রক্ষা, সিলেট কোমারগাঁও পাওয়ার স্টেশন রক্ষা করার কাজে নেমেছে সেনা সদস্যরা। শুক্রবার সকালে সিলেটে সেনাবাহিনীর ১৭ পদাতিক ডিভিশন প্রধান মেজর জেনারেল হামিদুল হক এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

সিলেটে ভারী বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে তলিয়ে গেছে নগরীসহ সিলেট জেলার বিভিন্ন উপজেলার বিস্তৃর্ণ এলাকা। এতে সিলেট ও সুনামগঞ্জ জেলার বিভিন্ন উপজেলা ভয়াবহ রূপ নিয়েছে বন্যা। বন্যায় পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন লাখো মানুষ। পর্যাপ্ত নৌকা ও উদ্ধারকর্মী না থাকায় পানিতে আটকাপড়া মানুষ উদ্ধার করা সম্ভব হচ্ছে না।

উল্লেখ্য, শুক্রবার সকালে সিলেট জেলা প্রশাসক মো. মজিবর রহমান পানিবন্দি মানুষকে উদ্ধারসহ সার্বিক সহযোগিতা চেয়ে ১৭ পদাতিক ডিভিশন সিলেটের জেনারেল অফিসার কমান্ডিং বরার চিঠি পাঠিয়েছিলেন।

কমেন্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published.