সব নজর শলৎজের ওপর, ইউক্রেনকে কি দেন তিনি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :: জার্মান চ্যান্সেলর, ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ও ইতালির প্রধানমন্ত্রী বৃহস্পতিবার  ইউক্রনের রাজধানী কিয়েভ সফরে গেছেন।তাদের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন রোমানিয়ার প্রেসিডেন্টও।

সবার নজর এখন জার্মান চ্যান্সেলর ওলাফ শলৎজের ওপর। ইউক্রেনকে কি রকম সাহায্য দেওয়ার আশ্বাস বা প্রতিজ্ঞা করেন তিনি সেটি দেখার বিষয়।

ওলাফ শলৎজ নিজেকে একটি কঠিন কাজে পরিণত করেছেন।

জার্মান চ্যান্সেলর বলেছিলেন, শুধুমাত্র ছবি তুলতে তিনি ইউক্রেন সফরে যাবেন না।

তাহলে ইউক্রেনকে কি দেওয়ার প্রতিশ্রতি তিনি দেবেন? বার্লিনে নিযুক্ত ইউক্রেনের রাষ্ট্রদূত পরিস্কারভাবে বৃহস্পতিবার সকালে  একটি জার্মান গণমাধ্যমকে বলেছেন, ইউক্রেন জার্মানির কাছ থেকে ভারি অস্ত্র চায়। বিশেষ করে লিউপার্ড এবং মার্ডার ট্যাংক।

কিন্তু ট্যাংকের বিষয়টি নিয়ে জার্মানি ইতিবাচক না। চ্যান্সেলর শলৎজ কথা দিয়েছিলেন ইউক্রেনকে ভারি অস্ত্র দেবেন। কিন্তু এখনো চূড়ান্ত করেনি।

ইউক্রেন শলৎজের সমালোচনা করে বলেছে, তিনি রাশিয়া ও ইউক্রেনের সঙ্গে সমন্বয় রেখে চলতে চান।

শুধুমাত্র ইউক্রেনই এখন কাছ থেকে শলৎজকে পর্যবেক্ষণ করবে না।

জার্মানরাও জানতে চায় তাদের নেতা কি করবেন। ইতিমধ্যেই এটি প্রকাশ পেয়েছে, শলৎজ সিদ্ধান্ত নিতে পারেন না।

ইউক্রেনে রাশিয়ার হামলার কারণে শলৎজ বলেছেন তিনি তার দেশকে নতুন একটি যুগে নিয়ে গেছেন। যেখানে প্রতিরক্ষা এবং সামরিক বিষয়টি গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু জার্মান সেনবাহিনীর ওপর বেশি খরচ করার কথা বলে পেছনে তিনি কি বুঝিয়েছেন সেটি অনেকেই জানতে চায়।

যদিও শলৎজ আজ ইউক্রেনে ছবি তুলেছেন। কিন্তু তার এবারের কিয়েভ সফরটি তার জন্যই একটি সুযোগ, ইউক্রেনকে যেসব কথা দিয়েছিলেন সেগুলো দেওয়ার।

সূত্র: বিবিসি

কমেন্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published.