রাশিয়া হেরে গেলে কী ঘটবে জানালেন ইউক্রেনের সামরিক গোয়েন্দা প্রধান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: ইউক্রেনের সামরিক গোয়েন্দা সংস্থার প্রধান মেজর জেনারেল কিরিলো বুদানভ বলেন, রাশিয়া যুদ্ধে হেরে গেলে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের বিরুদ্ধে একটি অভ্যুত্থান ঘটবে। বিবিসি শনিবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

অবশ্য পুতিনের বিরুদ্ধে অভ্যুত্থান  ইতোমধ্যেই চলছে বলেও দাবি করেছেন তিনি। বিবিসি ওই দাবির সত্যতা যাচাই করতে পারেনি।

তিনি আরও দাবি করেন, প্রেসিডেন্ট পুতিন খুব খারাপ মানসিক এবং শারীরিক অবস্থার মধ্যে ছিলেন এবং তিনি খুব অসুস্থ। তার এই ধরনের দাবিও প্রমাণিত হয়নি।

তবে পুতিনের শারীরিক অবস্থা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই কানাঘুষা চলছে। ইউক্রেন অভিযান শুরুর পর থেকেই রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনকে জনসম্মুখে খুব বেশি দেখা যাচ্ছে না। কয়েকদিন আগে ইউক্রেনের মারিউপোল নিয়ে রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী  সের্গেই শোইগুর সঙ্গে টেলিভিশনে সম্প্রচারিত এক বৈঠকে অংশ নেন তিনি।

তবে শোইগুর সঙ্গে  কথা বলার সময় পুতিনকে টেবিল আঁকড়ে ধরতে দেখা গেছে। তার মুখও ছিল কিছুটা ফোলা। এমনকি পুতিন স্থির হয়ে বসে ছিলেন না। তিনি তার পা নাড়াছিলেন। পুতিনের এই কর্মকাণ্ড দেখে তিনি পারকিনসনে আক্রান্ত এই গুজবকেই উসকে দিচ্ছে বলে ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম ডেইলি মেইল ও ডেইলি সান এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে।

ডেইলি সান জানায়, পুতিনের সর্বশেষ উপস্থিতি চমকপ্রদ। কারণ পুতিনকে তার চিরচেনা সাহসী রূপে দেখা যায়নি। বরং তাকে বিভ্রান্ত দেখাচ্ছিল।

১২ মিনিটের ওই বৈঠকের প্রায় পুরোটা সময়ই পুতিন টেবিল আঁকড়ে ছিলেন।

তার বৃদ্ধাঙ্গুল টেবিলের উপরে থাকলেও বাকি চারটি আঙ্গুল দিয়ে তিনি সজোরে টেবিল ধরে ছিলেন। বৈঠকের বেশির ভাগ সময় ক্রমাগত দুই পা নাড়তেও দেখা যায়।

এ ব্যাপারে টেক্সাস টেক ইউনিভার্সিটির বডি ল্যাঙ্গুয়েজ বিশেষজ্ঞ প্রফেসর এরিক বুসি দ্য সান অনলাইনকে বলেন, কয়েক বছর আগে আমরা যে মানুষটিকে দেখেছি তার তুলনায় এই চিত্র আশ্চর্যজনকভাবে দুর্বল পুতিনের।

তিনি বলেন, এটা সুস্থ পুতিনের একটি প্রতিকৃতি নয়। পুতিনের পাগুলোও বেশ চিকন দেখা যাচ্ছে। মনে হচ্ছে অঘোষিত কোনো রোগে তার ওজন কমে যাচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, তার ফোলা মুখ দেখে তাকে আরও অসুস্থ মনে হচ্ছে। বিশেষ করে কয়েক বছর আগের ছবি ও ভিডিওতে দেখা পুতিনের তুলনায়।

অবশ্য রুশ প্রেসিডেন্টের স্বাস্থ্য নিয়ে এই চর্চা নতুন নয়। এর আগেও পুতিন ক্যান্সার আক্রান্ত হয়েছেন এবং একইসঙ্গে তার পারকিনসন রোগেরও লক্ষণ দেখা দিয়েছে বলে কানাঘুষা শোনা গেছে।

যদিও এ বছরের অক্টোবরে ৭০ বছরে পা রাখতে যাওয়া পুতিনের স্বাস্থ্যগত কোনো সমস্যার বিষয় বরাবরই অস্বীকার করে আসছে ক্রেমলিন।

কমেন্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published.