সরকারি চাকরিজীবী পাত্র না পাওয়ার হতাশায় ‘আত্মহত্যা’

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: গ্রামের সবাই তাকে এক ডাকে ‘ভালো মেয়ে’ বলে চিনতেন। পড়াশোনার পাট চুকানোর পর দীর্ঘদিন ধরেই তার জন্য পাত্রের খোঁজ চলছিল।

বিয়ের জন্য মেয়ের একটিই ‘শর্ত’ ছিল— পাত্রকে সরকারি চাকরিজীবী হতে হবে!

তবে ‘শর্তপূরণ’ না হওয়ায় কোনো পাত্রকেই মনে ধরছিল না বছর ছাব্বিশের মেয়েটির। বৃহস্পতিবার সকালে তাই গলায় ফাঁস লাগিয়ে সেই মেয়ে ‘আত্মহত্যা’ করেন বলে তার পরিবারের দাবি। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

মুর্শিদাবাদের কান্দির বাসিন্দা মেয়েটির ‘আত্মঘাতী’ হওয়ার কথা শুনে প্রতিবেশীদের দাবি— সরকারি চাকরিজীবী পাত্র না মেলায় মানসিক অবসাদে আত্মহত্যা করেছেন শিল্পী ঘোষ।

বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে কান্দির খড়গ্রামের গুরুটিয়া গ্রামের বাসিন্দা শিল্পী ঘোষের ঝুলন্ত মরদেহ দেখতে পান বলে জানিয়েছেন তার পরিবারের সদস্যরা। তারাই খড়গ্রাম থানায় খবর দেন।

পুলিশ গলায় গামছার ফাঁসে শিল্পীর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার করে। এর পর স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে শিল্পীকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা।

কমেন্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published.