হবিগঞ্জ সদর উপজেলার রিচি হাই স্কুলের মেধাবি ছাত্রী জেরিনের মৃত্যু হত্যা নাকি দুর্ঘটনা…?

সিলেট নিউজ টাইমস্ ডেস্ক:: হবিগঞ্জ সদর উপজেলার রিচি এলাকায় সড়ক দূর্ঘটনায় এসএসসি পরিক্ষার্থী মদিনাতুল কিবরিয়া জেরিনের মৃত্যু নিয়ে নতুন তথ্য উঠে আসতে শুরু করেছে। ওইদিন সে সড়ক দূর্ঘটনার শিকার হয়নি। এর পেছনে অন্য কারণ রয়েছে বলে সূত্র জানায়। তবে বিষয়টি নিয়ে তদন্তে নেমেছে পুলিশ। এটি হত্যা, নাকি দূর্ঘটনা এ ব্যাপারে আজ-কালের মধ্যেই মূল রহস্য উদঘাটন হতে পারে বলে জানা গেছে।

তবে অনুসন্ধানে জানা যায়- সিএনজি অটোরিক্সার ধাক্কায় জেরিন নিহত হয়েছে, বলে সামনে আসলেও পেছনে রয়েছে অন্য কারণ। সেদিন জেরিন বাড়ি থেকে স্কুলের উদ্দেশ্যে প্রাইভেট পড়তে রওনা হয়। এ সময় কয়েকজন যুবক জেরিনকে অপহরণ করে সিএনজি অটোরিক্সাযোগে শহরের দিকে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এ সময় সিএনজিটি রিচি এলাকায় পৌঁছলে জেরিন অপহরণকারীদের কাছ থেকে বাঁচতে সিএনজি থেকে লাফ দেয়। এতে সে গুরুত্বর আহত হলে স্থানীয় লোকজন উদ্ধার করে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক জেরিনকে আশংকাজনক অবস্থায় সিলেটে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত রোববার সকালে তার মৃত্যু হয়।

তার মৃত্যুর সংবাদ সহপাঠীদের মধ্যে ছড়িয়ে পড়লে তারা সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে বিক্ষোভকারী ও নিহতের পরিবারের লোকজনদের শান্তনা দেন এবং দোষীদের আইনের আওতায় আনার প্রতিশ্রুতি দিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করেন।

এদিকে, বিষয়টি নিয়ে তার সহপাঠিদের বিভিন্ন অভিযোগের ভিত্তিতে জোরালো অনুসন্ধানে নামে পুলিশ। এরই পরিপ্রেক্ষিতে গতকাল সোমবার পুলিশ ২ যুবককে আটক করেছে বলে জানা গেছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পুলিশের এক কর্মকর্তার আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান-পুলিশ আটককৃতদের ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করছে। তবে তদন্তের সার্থে বিষয়টি এখন প্রকাশ করা হচ্ছে না। মঙ্গলবার এ ব্যাপারে প্রেস ব্রিফিং করার কথা রয়েছে।

নিহত জেরিন হবিগঞ্জ সদর উপজেলার রিচি উচ্চ বিদ্যালয়ের এসএসসি পরিক্ষার্থী। সে লুকড়া ইউনিয়নের ধল গ্রামের আব্দুল হাই মিয়ার মেয়ে। পিএসসি ও জেএসসিতে সে জিপিএ-৫ পেয়ে কৃতকার্য হয়।

কমেন্ট