লাখাইয়ে চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্রী ধর্ষনের ঘটনায় লম্পট ধর্ষক আটক

10 total views, 1 views today

নিজস্ব প্রতিনিধি:: হবিগঞ্জের লাখাইয়ে স্কুল ছাত্রী ধর্ষনের ঘটনায় ধর্ষককে আটক করছে পুলিশ। পরে তাকে আদালতে প্রেরন করলে ১৬৪ ধারা জবানবন্দি প্রদান করেছেন।

গতকাল শুক্রবার বিকেলে লাখাই থানার পুলিশ জুডিসিয়াল ম্যাসিস্ট্রেট তাহমিনা বেগমের আদালতে প্রেরন করলে দীর্ঘ ১ ঘন্টা ব্যাপী স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দীতে ধর্ষনের ঘটনা স্বীকার করে বর্ণনা দেয়। এর আগে শুক্রবার ভোর রাতে হবিগঞ্জ সদর থানার ওসি তদন্ত জিয়াউর রহমান ও লাখাই থানার এসআই রকিবুল হাসান ও আমিনুল ইসলামের নেতৃত্বে একদল পুলিশ সদর উপজেলার রিচি গ্রামের তার বিয়াই (ছেলের শশুর) বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করে।

আটককৃত জহুর আলী (৮০) ওরফে জোরা মিয়া লাখাই উপজেলার ভাদিকারা গ্রামের মৃত আলী আকবরের পুত্র।

গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ভাদিকারা গ্রামের একটি ধানের খলায় ওই গ্রামের মোঃ আলমগীর মিয়ার কন্যা ভাদিকারা আদর্শ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্রী (১০) কে ধর্ষন করে রক্তাক্ত করে পালিয়ে যাবার সময় স্থানীয় লোকজন তাকে আটক করে উত্তম-মধ্যম দিয়ে বামৈ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। এক পর্যায়ে ধর্ষক সেখান থেকে পালিয়ে যায়। এবং বিষয়টি রফা-দফার চেষ্টা করে স্থানীয় মাতব্বররা। পরে মমুর্ষ অবস্থায় ওই ছাত্রীকে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার অবস্থা আশংকাজনক বলে জানিয়েছেন ডাঃ মেহেদি হাসান।

লাখাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ এমরান হোসেন জানান, কোন অভিযোগ না পেয়েও সাংবাদিকদের মুখ থেকে বিষয়টি শুনে পুলিশ তৎপর হয় এবং ওই দিন রাতেই ধর্ষককে আটক করা হয়।

গতকাল শুক্রবার দুপুরে ওই ছাত্রীর পিতা মোঃ আলমগীর বাদী হয়ে লাখাই থানায় ধর্ষনের মামলা দায়ের করেন।

কমেন্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.