সদর হাসপাতালে বিষাক্রান্ত গৃহবধুর মৃত্যু:পিত্রালয়ের দাবী মুখে বিষ ঢেলে হত্যা

19 total views, 1 views today

নিজস্ব প্রতিনিধি :: হবিগঞ্জেরর সদর আধুনিক হাসপাতালে বিষাক্রান্ত অবস্থায় নাছিমা আক্তার (২২) নামে এক গৃহবধুর মৃত্যু নিয়ে ধুম্রজাল সৃষ্টি হয়েছে। নাছিমার পিত্রালয়ের লোকজন দাবী করছেন তাকে মুখে বিষ ঢেলে পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করেছে পরকিয়াসক্ত স্বামী। যদিও হত্যা না আত্মহত্যা তাৎক্ষনিক ভাবে বিষয়টি সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যায়নি। গতকাল শনিবার সকালে সে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে মারা যায়।

এ দিকে হাসপাতালে লাশ ফেলে পালিয়ে যাওয়ার ঘটনায় শ্বশুরালয়ের লোকজনের দিকে সন্দেহের তীর জোরালো হচ্ছে। নিহত নাছিমা চুনারুঘাট উপজেলার উবাহাটা গ্রামের সোহেল মিয়ার স্ত্রী।

তবে এ বিষয়ে বানিয়াচং উপজেলার মন্দরী গ্রামের দিলোয়ার হোসেনের পুত্র মৃত নাছিমার ভাই হেলাল মিয়া অভিযোগ করে জানান, প্রায় ৮ বছর পূর্বে চুনারুঘাট উপজেলার উবাহাটা গ্রামের আফছর মিয়ার পুত্র সোহেলের সাথে নাছিমাকে বিয়ে দেওয়া হয়। তাদের সংসারে তাসকিন আহমেদ নামে এক পুত্র সন্তান রয়েছে। সম্প্রতি সোহেল পরকিয়ায় আসক্ত হয়ে পড়লে প্রায়ই এ নিয়ে তাদের সংসারে কলহ দেখা দেয়। বিষয়টি নাছিমা তার ভাই হেলালকে সময়ে-সময়ে অবগত করত।

গত শুক্রবার সোহেলকে তার পরকিয়া প্রেমিকার সাথে আপত্তিকর অবস্থায় দেখলে এ নিয়ে তাদের মধ্যে ঝগড়ার সুষ্টি হয়। এক পর্যায়ে সোহেল ক্ষিপ্ত হয়ে নাছিমাকে মারধর করে তার মুখে পরিকল্পিত ভাবে বিষ ঢেলে ওই দিন রাতেই হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিয়ে আসে সে। শনিবার সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় নাছিমা। পরে লাশ হাসপাতালে রেখেই পালিয়ে যায় সোহেল।

এদিকে, খবর পেয়ে সদর থানার এস.আই এস.এম আতাউর রহমান লাশের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে মর্গে প্রেরণ করেন। তবে ময়না তদন্ত রিপোর্ট পাবার পর মৃত্যুর আসল কারন জানা যাবে। তবে মামলা হলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

কমেন্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.