আমি নোবেল পুরস্কারের যোগ্য নই: ইমরান খান

9 total views, 1 views today

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছেন, তিনি নোবেল শান্তি পুরস্কার পাওয়ার যোগ্য নন। যে ব্যক্তি কাশ্মীর সমস্যার সমাধান করতে পারবেন তিনিই এ পুরস্কার পাওয়ার দাবি করতে পারেন।

পাক-ভারত চলমান উত্তেজনা প্রশমন ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশ তৈরিতে আটক ভারতীয় পাইলটকে মুক্তি দেয়ার পর পাকিস্তানের এই প্রধানমন্ত্রীকে শান্তিতে নোবেল দেয়ার দাবিতে অনলাইনে একটি পিটিশন চালু করেছেন পাকিস্তানিরা। ইমরানকে নোবেল দেয়ার দাবিতে টুইটারেও হ্যাশট্যাগ ঝড় তুলেছেন তারা।

তবে নিজেকে এই পুরস্কারের যোগ্য বলে মনে করেন না ইমরান খান। সোমবার এক টুইট বার্তায় তিনি বলেন, ‘আমি নোবেল শান্তি পুরস্কারের যোগ্য নই। যে ব্যক্তি কাশ্মীরি জনগণের আশা আকাঙ্খার প্রতিফলন ঘটিয়ে কাশ্মীর সমস্যার সমাধান এবং এই উপমহাদেশে শান্তি ও মানবিক উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে পারবেন, তিনিই এই পুরস্কারের যোগ্য ব্যক্তি।’

প্রতিবেশী ভারতের সঙ্গে টান টান উত্তেজনা প্রশমন ও পাইলট অভিনন্দনকে মুক্তি দেয়ার পর থেকে অনলাইনে ইমরান খানকে নোবেল শান্তি পুরস্কার দেয়ার দাবিতে চালু হওয়া ওই পিটিশনে এখন পর্যন্ত তিন লাখের বেশি মানুষ স্বাক্ষর করেছেন।

পাকিস্তানে গত বৃহস্পতিবার টুইটারে ইমরান খানকে নোবেল দেয়ার দাবি করে টুইট হ্যাশট্যাগ ট্রেন্ডিং হয়। টুইটারে ইমরান খানের জন্য শুরু হয়েছে নোবেল শান্তি পুরস্কার (#NobelPeaceForImranKhan) হ্যাশট্যাগ ঝড় ।

ইমরানের ভারতীয় পাইলটকে ছেড়ে দেয়ার ঘোষণাকে অনেকেই উপমহাদেশে শান্তি প্রতিষ্ঠার এক উদ্যোগ হিসেবেই দেখছেন। তার এ ঘোষণার পরই ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে উত্তেজনা অনেক কমে এসেছে। এর আগেও তিনি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে উদ্দেশ্য করে একাধিকবার শান্তি আলোচনা শুরু করার প্রস্তাব দিয়েছিলেন। কিন্তু তার এসব প্রস্তাবে সাড়া দেননি মোদি।

প্রসঙ্গত, গত বুধবার পাকিস্তান সেনাবাহিনী গুলি চালিয়ে ভারতীয় যুদ্ধবিমান মিগ টোয়েন্টি ওয়ান ভূপাতিত ও বিমানের পাইলট অভিনন্দনকে আটক করে। এর পরদিনই পার্লামেন্টে হঠাৎ করেই পাইলটকে দেশে ফেরত পাঠানোর ঘোষণা দেন ইমরান খান। প্রধানমন্ত্রীর কথা অনুযায়ী শুক্রবার ভারতীয় এই পাইলটকে ওয়াগাহ সীমান্ত দিয়ে দেশে ফেরত পাঠায় পাকিস্তান।

কমেন্ট
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •