চাঁদাবাজ ও মাদক ব্যবসায়ীদের হুমকিতে নিরাপত্তাহীন এক পরিবার

159 total views, 1 views today

গোলাপগঞ্জ উপজেলার কদমতলী কলেজ রোডের বাসিন্দা মো. রুবেল আহমদ মাদক ব্যাবসায়ী ও চাঁদাবাজদের প্রাণনাশের হুমকির ঘটনায় চরম নিরাপত্তাহীনতার মধ্যে রয়েছেন। তিনি নিজের এবং পরিবারের সদস্যদের নিরাপত্তাবিধান ও চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যাবস্থা গ্রহনের জন্য উপমহাপুলিশ পরিদর্শক সিলেট রেঞ্জ ও সিলেটের পুলিশ সুপার বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করেছেন। ১৩ ডিসেম্বর এই স্মারকলিপি প্রদান করে এর অনুলিপি মহা পুলিশ পরিদর্শক বাংলাদেশ পুলিশ হেড কোয়ার্টাসে প্রেরণ করেছেন।

স্মারকলিপিতে রুবেল আহমদ উলে-খ করেন, গোলাপগঞ্জ উপজেলার রনকেলী বড়বাড়ীর বাবু ও রনকেলী দিঘীরপাড়ের নয়ন এলাকায় মাদক ব্যবসা করে যুব সমাজকে ধ্বংসের দিকে নিয়ে যাচ্ছে। রুবেল আহমদ এ ব্যাপারে তাদের বাধা নিষেধ প্রদান করলেও তারা ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে। সন্ত্রাসী বাবু ও নয়ন এক পর্যায়ে রুবেল আহমদের স্ত্রী রুহেনা আহমদের কাছে একলাখ টাকা চাঁদা দাবি করে।

চাঁদা না দিলে প্রাণনাশ সহ নানা হুমকি ধমকি প্রদান করে। পরবর্তীতে এসব সন্ত্রাসীদের সাথে রুবেল আহমদের কথা কাটাকাটি হয়। এসময় তারা রুবেল আহমদ ও রুহেনা আহমদকে দেখে নেওয়ার হুমকি দেয়। শুধু তাই নয় গোলাপগঞ্জ থানার এস আই মো. জালাল উদ্দিন সহ উপরোক্ত সন্ত্রাসীরা রুহেনা আহমদের বাসায় গিয়ে তাকে চাঁদা দেওয়ার জন্য চাপ দিয়ে যান।
অন্যাথায় তারা স্বামী স্ত্রীকে মাদকদ্রব্য দিয়ে ফাঁসিয়ে জেল
হাজতে পাঠানোর হুমকি দেন।

স্মারকলিপিতে আরো উলে-খ করা হয়, ৬ ডিসেম্বর রুহেনা বেগম ভাড়াকৃত কারযোগে বাবার বাড়ী ছড়ারপাড় আসার পথে হেতিমগঞ্জ বাজারে উক্ত এস আই ও সন্ত্রাসীরা তার গাড়ির গতিরোধ করেন। এ সময় রুহেনা আহমদকে এস আই জালাল উদ্দিন তার কাছে মাদকদ্রব্য রয়েছে অভিযোগ তুলে গোলাপগঞ্জ থানায় নিয়ে আসেন। সেখানে রুহেনা আহমদের দেহ তল-াশী করেন এবং তার গাড়িতে তল্লাশী চালান কিন্তু তারা কোনো কিছু পাননি। যে কারনে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা উক্ত এসআই কে ভৎসর্না করেন এবং রোহেনার কাছে দুঃখ প্রকাশ করেন। এ অবস্থায় নিরাপত্তাহীণতায় ভুগছেন রুবেল ও তার পরিবার।

কমেন্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.