বিদেশি পর্যবেক্ষকদের গোপন এজেন্ডা থাকে: ১৪ দল

96 total views, 3 views today

নিউজ ডেস্ক:: নির্বাচনের সময় আসা বিদেশি পর্যবেক্ষকদের গোপন এজেন্ডা থাকে বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশের সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া।

৪ ডিসেম্বর, মঙ্গলবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ে অবস্থিত নির্বাচন ভবনে নির্বাচন কমিশনের সচিব হেলালুদ্দীন আহমদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে দিলীপ বড়ুয়ার নেতৃত্বে ৪ সদস্যের ১৪ দলীয় জোট।

সাক্ষাৎ শেষে দিলীপ বড়ুয়া বলেন, ‘আমরা এটাও বলেছি যে, বিদেশি যেসব পর্যবেক্ষকরা আসবেন প্রত্যেক দেশের, বিভিন্ন সময় দেখা যায়, তাদের কতগুলো হিডেন (গোপন) এজেন্ডা থাকে। এই বিদেশি পর্যবেক্ষকরা ইনডিসগাইস (ভিন্নখাতে), যাতে নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে না পারে সে ব্যাপারে সতর্ক থাকবে নির্বাচন কমিশন।’

পর্যবেক্ষকদের বিষয়ে এক লিখিত বক্তব্যে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন ১৪ দলীয় জোটের পক্ষ থেকে বলা হয়, ‘নির্বাচন পর্যবেক্ষণের জন্য দেশীয় পর্যবেক্ষকদের পাশাপাশি বিদেশি পর্যবেক্ষক টিম থাকে। দেশীয় পর্যবেক্ষক হিসেবে বিভিন্ন এনজিও ও বেসরকারি সংস্থা কাজ করে থাকে। এদের মধ্যে কিছু এনজিও বা সংস্থার অর্থায়ন এবং তাদের উদ্দেশ্য নিয়ে জনমনে প্রশ্ন আছে। কোনো কোনো ক্ষেত্রে দেখা যায়, তারা পূর্বনির্ধারিত মনোভাব নিয়ে মন্তব্য করে থাকে, যেটা পক্ষপাতমূলক।’

১৪ দল দাবি করে, বিদেশি পর্যবেক্ষকদের ক্ষেত্রেও একই অবস্থা। অনেকে আগে থেকে কোনো নির্দিষ্ট রাজনৈতিক দলের প্রতি পক্ষপাতিত্ব নিয়ে নির্বাচন পর্যবেক্ষণে আসে, অনেকে পরিচয় গোপন করে পর্যবেক্ষক হিসেবে এসে বিভিন্ন তথ্য বা সংবাদ সংগ্রহ করে থাকে। যেগুলো নির্বাচন বিধিমালার সুস্পষ্ট লঙ্ঘন।

নির্বাচনকে নিয়ে বিএনপি ও ঐক্যফ্রন্ট ব্লেইম গেইম খেলছে বলেও অভিযোগ করেন দিলীপ বড়ুয়া।

তিনি বলেন, ‘নির্বাচনকে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে প্রশ্নবিদ্ধ করার পায়তারা করছে বিএনপি ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। দেশে ও বিদেশে এ ধরনের নানান পরিকল্পনা চলছে। নির্বাচনের আগে অন্তর্ঘাত ও নাশকতামূলক কাজ করতে পারে এই জোট। যাদের মূল নিয়ামক শক্তি জামায়েতে ইসলাম। নির্বাচনকে ভণ্ডুল করার মধ্য দিয়ে রাজনৈতিক পরিস্থিতিকে অস্থিতিশীল করতে চাচ্ছে তারা।’

এসব ঠেকাতে নির্বাচন কমিশনকে সর্তকতামূলক ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ জানায় ১৪ দলীয় জোট।

কমেন্ট
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •