হবিগঞ্জে হাঁসের খামার মালিকে রাতের আঁধারে নির্মম ভাবে হত্যা

55 total views, 1 views today

আজিজুল ইসলাম সজীব:: হবিগঞ্জের লাখাই উপজেলায় হাওরে দুর্বৃত্তদের হামলায় হাঁসের খামারী খুন হয়েছেন। নিহত খামারীর নাম কাদির মিয়া। তিনি করাব ইউনিয়নের হোসেনপুর গ্রামের বাসিন্দা।
গতকাল দিবাগত রাতে খালিউড়ি হাওরে কাদির মিয়ার হাঁসের খামারে এ ঘটনাটি ঘটে। গতকাল দুপুরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে। পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, কাদির মিয়া দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় হাঁসের খামার করে জীবিকা নির্বাহ করছেন। খালিউড়ি হাওরে হাঁসের খামার তৈরী করে সেখানেই দিনরাত হাঁস লালন পালন করে থাকেন। কাদির মিয়ার খামার থেকে কিছু দূরে তার বড় ভাই সফু মিয়ারও একটি খামার রয়েছে। সেখানে তার ভাই সফু মিয়া ও নাদির হোসেন রাতযাপন করে থাকেন।
গতকাল দিবাগত গভীর রাতে একদল দুর্বৃত্ত প্রথমে সফু মিয়ার খামারে হানা দেয়। সেখানে তারা সফু মিয়া ও নাদির হোসেনকে বেঁধে মারপিট করে। পরে দুর্বৃত্তরা কাদির মিয়ার খামারে গিয়ে তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে। দুর্বৃত্তদের হামলা থেকে প্রাণরক্ষার্থে কাদির মিয়া দৌড়ে সফু মিয়ার খামারের কাছে এসে লুটিয়ে পড়ে চিৎকার করেন। এক পর্যায়ে তিনি মারা যান।
নিহত পরিবার সূত্রে জানান, তর ভাই কাদিরের মেয়ে একই গ্রামের ধনাই মিয়ার পুত্র আফছর মিয়ার সাথে বিয়ে হয়। কিন্তু বিয়ে বেশী টিকেনি। এ নিয়ে মামলা মোকদ্দমা চলছে।
এদিকে সম্প্রতি আফছর মিয়া তার শশুর নিহত কাদির মিয়াকে মারধর করে। পরে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল হাই কামালসহ স্থানীয় মুরুব্বীরা শালিসে ঘটনাটি মিমাংসা করে দেন। কিন্তু আফছর মিয়া শালিসের এ রায় অমান্য করে। যে কারণে বিরোধ থেকেই যায়। এদিকে সম্প্রতি খামার করা নিয়ে কাদির মিয়ার সঙ্গে একই গ্রামের সফিক মিয়া ও ফরিদ মিয়ার বিরোধ দেখা দেয়। তাদের দাবী পূর্ব বিরোধের জের ধরেই প্রতিপক্ষের লোকজন কাদির মিয়াকে হত্যা করেছে।
এ ব্যাপারে লাখাই থানার ওসি মো. এমরান হোসেন বলেন, রাস্তা ও হাঁসের খামার করা নিয়ে তাদের মাঝে বেশ কয়েকদিন ধরে বিরোধ চলছিল। ধারণা করা হচ্ছে এর জের ধরেই হয়তো হত্যাকাণ্ড ঘটেছে। তবে প্রত্যক্ষদর্শীদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এ ঘটনায় এখনো মামলা হয়নি।
এ ব্যাপারে লাখাই থানার (ওসি) তদন্ত অজয় দেব খুনের ঘটনাটি নিশ্চিত করে বলেন খুনের ঘটনা উদঘাটনে চেষ্টা চলছে।
কমেন্ট
শেয়ার করুন
  • 25
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    25
    Shares