সিলেট নিউজ টাইমস্ | Sylhet News Times

বাবা-মার দেখাশোনার দ্বায়িত্ব না নিলে কাটা যাবে বেতন

125 total views, 1 views today

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: বাবা-মাকে অবহেলা করলে, যত্ন না নিলে অথবা শারীরিক প্রতিবন্ধী ভাই-বোনকে অবহেলা করলে অাসামের সরকারি কর্মীরা বিপদে পড়বেন। কারণ, বাবা-মাকে দেখাশোনা না করলে বেতন কেটে নেবে সরকার। ২ অক্টোবর থেকে ভারতের অাসামে চালু হচ্ছে ‘প্রণাম’ আইন। এই আইন অনুযায়ী, বাবা-মাকে দেখাশোনা না করলে সরকারি কর্মীরা তাদের আয়ের ১০ শতাংশ অর্থ বাবা-মাকে দেবেন।

যদি বাবা-মা অসুস্থ হন বা বাড়িতে শারীরিক প্রতিবন্ধী ভাই-বোন থাকে, তাহলে বাড়বে টাকার পরিমাণ। তখন বেতন থেকে ১৫ শতাংশ টাকা কেটে নেয়া হবে।অাসামের স্বাস্থ্য, অর্থ ও পূর্ত দফতরের মন্ত্রী হেমন্ত বিশ্বশর্মা বলেন, ‘এই আইনকে ‘প্রণাম’ নাম দেয়া হচ্ছে। নজরদারি চালাতে প্রণাম কমিশন গঠন করা হবে। কমিশনের আধা বিচার বিভাগের ক্ষমতা থাকবে।’

নতুন আইন অনুযায়ী, বাবা-মা যদি মনে করেন সন্তানরা তাদের দেখাশোনা করছে না, তাহলে তারা সন্তানের বেতনের ১০ শতাংশ টাকা দাবি করতে পারবেন। এছাড়া বাড়িতে কোনো শারীরিক প্রতিবন্ধী অন্য সন্তান থাকলে বা বাব-মা যদি দীর্ঘস্থায়ী অসুস্থ রোগী হন, তাহলে ১৫ শতাংশ টাকা দাবি করা যাবে। কোনো পরিবারে যদি একাধিক সরকারি চাকুরিজীবী থাকেন, তাহলে টাকার পরিমাণ তাদের মধ্যে ভাগাভাগি হয়ে যাবে।

হেমন্ত বিশ্বশর্মা জানান, প্রণাম কমিশনে একজন চেয়ারম্যান এবং দুজন অতিরিক্ত কমিশনার থাকবে। সবাইকে মনোনীত করা হবে। কোনো বাবা-মা যদি মনে করেন, তাদের সন্তান তাদের দেখাশোনা করছে না, তবে তারা প্রথমে জেলা উন্নয়ন কর্মকর্তার কাছে যাবেন। সেখানে যদি সুরাহা না পাওয়া যায়, তবে তারা কমিশনের ডিরেক্টরের কাছে আবেদন জানাবেন। সেখানও যদি সমস্যা না মেটে, তবে বাবা-মা প্রণাম কমিশনের দ্বারস্থ হতে পারবেন।

আসামে প্রায় ৪ লাখ সরকারি কর্মী রয়েছেন। বেতন হওয়ার দিনই তাদের টাকা কেটে নেবে সরকার। পরে সেই টাকা বাবা-মায়ের অ্যাকাউন্টে ট্রান্সফার করে দেয়া হবে।

কমেন্ট
শেয়ার করুন