সিলেট নিউজ টাইমস্ | Sylhet News Times

মৌলভীবাজারে দু’পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ২, আহত ৩৫

86 total views, 1 views today

নিউজ ডেস্ক:: মৌলভীবাজার সদরের পংমদপুর মৌজার সরকারি জমি নিয়ে বিরোধে দুই পক্ষের সংঘর্ষে গতকাল নিহত হয়েছেন ২ জন। আহত হয়েছেন ৩৫ জন। সকাল ১১টায় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। পুলিশ ২০ জনকে গ্রেপ্তার করেছে। পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শাহজালালসহ ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। গুরুতর আহত ২ জনকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও আরো ২ জনকে মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।পুুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়

সদর উপজেলার পূর্ব লামুয়া গ্রামের ফকিরবাড়ি ও লেবাস মিয়ার গোষ্ঠীর লোকজনের মধ্যে সরকারি জমি (স্থানীয় বরহাওর যাওয়ার রাস্তা) নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল।
এই বিরোধের জের ধরে শুক্রবার রাতে কয়েক দফা দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে

দুই পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পালটা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এই সময় স্থানীয়রা মিটমাট করে দেন। গতকাল সকালে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে উভয়পক্ষ সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। এ সময় প্রতিপক্ষের অস্ত্রের আঘাতে দুই জন নিহত হন। নিহতরা হলেন- লামুয়া গ্রামের মো. আবদুল মালিক (৫০) ও পূর্ব খলিলপুর এলাকার শফিফুর রহমান (২৫)। এ ঘটনায় গুরুতর আহত সুহেল আহমদ (৩৫) ও লিয়াকত আলীকে (৩০) সিলেট ওসমানী মেডিকেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়াও হাসপাতাল থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন- আউয়াল মিয়া (৩৪), রুমান মিয়া (২৭), রায়হান (২৫), সুফি মিয়া (৬০), মহরুপ রহমান (৩০), রাজীব আহমদ (৩৩), আহতাব হোসেন (১৭), রেজিয়া (২৮), জমসেদ মিয়া (৫৫), ফখরুল ইসলাম (৪৬), ইমন মিয়া (৩০), তাহের মিয়া (৩৩), জয়নাল মিয়া (৪০), মো. সুয়েব (২৪), রুনা বেগম (১৭), হুছনা বেগম (৪০), ইকরা মিয়া (৪০), সেলিম মিয়া (২৭), রুহেনা বেগম (২৮), হালিমা বেগম (২৩), মিনহাজ মিয়া (৩৩), মহসীন মিয়া (২৮), উমেদ মিয়া (২৩), সুহেল মিয়া (৩৫)।

খলিলপুর ইউপি চেয়ারম্যান অরবিন্দু পোদ্দার বাচ্চু জানান, সরকারি জমি স্থানীয় লোকজন ভাগ করে ব্যবহার করছে। এই জমির কারো অংশে কম পড়েছে আবার কারো বেশি দখলে আছে। তা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে দু’পক্ষের মধ্যে বিরোধ। শুক্রবার লামুয়া গ্রামের লেবাস মিয়ার বাড়িতে একটি আকিকার অনুষ্ঠান ছিল। রাতে সেখানে দু’পক্ষের মধ্যে বিরোধ দেখা দেয়। এলাকার লোকজন থামিয়ে দেন এবং আজ বিষয়টি নিয়ে বসার কথা ছিল। কিন্তু তার আগেই দু’পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে এবং দুইজন নিহত হন। এদিকে সংঘর্ষের সঙ্গে জড়িত সন্দেহে গতকাল ওই এলাকা থেকে পুলিশ ২০ জনকে গ্রেফতার করেছে। মৌলভীবাজার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সোহেল আহম্মদ গতকাল বিকেলে এ তথ্য নিশ্চিত করে জানিয়েছেন। এখন পর্যন্ত মামলা হয়নি।

মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যার হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. পলাশ রায় সংঘর্ষে দু’জন নিহত হওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান আহত অবস্থায় হাসপাতালে অন্তত ৩৫ জন এসেছিল। তাদের মধ্যে দু’জনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ২ জনকে মৌলভীবাজার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। সংঘর্ষে নিহত দুই জনের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরিকারী মডেল থানার উপ-পরিদর্শক মহসীন ভূঁইয়া জানান, নিহতদের বুকে ও ঘাড়ে আঘাত রয়েছে।

কমেন্ট
শেয়ার করুন